সুস্থ হয়েছেন আরও ৬ জন

স্টাফ রিপোর্টার
সুনামগঞ্জ জেলায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে নতুন করে আরোগ্য লাভ করেছেন আরও ৬ জন। এরমধ্যে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলায় ৩ জন, দিরাই উপজেলায় ১ জন, দোয়ারাবাজার উপজেলায় ১ জন, এবং জগন্নাথপুর উপজেলায় ১ জন। এনিয়ে করোনা সংক্রমণ থেকে মোট আরোগ্য লাভ করেছেন ৭৮১ জন।
সবচেয়ে বেশী ১৮৬ জন সুস্থ হয়েছেন সুনামগঞ্জ উপজেলায়। এছাড়াও ছাতক উপজেলায় ১৭৩ জন, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় ৬১ জন, দিরাই উপজেলায় ২৯ জন, শাল্লা উপজেলায় ৩৬ জন, বিশ^ম্ভরপুর উপজেলায় ৩৩ জন, তাহিরপুর উপজেলায় ৩১ জন, জামালগঞ্জ উপজেলায় ৫৯ জন, ধর্মপাশা উপজেলায় ১৮ জন, দোয়ারাবাজার উপজেলায় ৭৭ জন এবং জগন্নাথপুর উপজেলায় ৭৮ জন সুস্থ হয়েছেন। করোনা আক্রান্তের তুলনায় সুস্থতার হার ৬৭ দশমিক ৭৯ শতাংশ।
জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায় শুক্রবার বিকাল পর্যন্ত নতুন করে বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে গেছেন ১৯ জন, আইসোলেসনে গেছেন ১৬ জন, কোয়ারেন্টাইন/আইসোলেসন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন ২৮ জন। এ পর্যন্ত সুনামগঞ্জ জেলায় ৬ হাজার ১৭৫ জনকে হোম কেয়ারেন্টাইনের আওতায় আনা হয়। কোয়ারেন্টাইন/আইসোলেসন থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয় ৬ হাজার ৮৪২ জনকে। এ ছাড়া করোনা সন্দেহে এ পর্যন্ত ১১৫২ জনকে আইসোলেশনে আনা হয়েছে।
করোনা শনাক্তে সবচেয়ে বেশী ২১৫৬ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা থেকে। এরমধ্যে পরীক্ষা করা হয়েছে ২০৩৬ জনের নমুনা।
এদিকে বৃহস্পতিবার সুনামগঞ্জ জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন আরও ১৬ জন। সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পিসিআর ল্যাবে ৭০ টি নমুনা পরীক্ষায় এই ১৬ জন শনাক্ত হয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে রয়েছেন সুনামগঞ্জ সদর উপজেলায় ১২ জন এবং দিরাই উপজেলার ৪ জন।
সবচেয়ে বেশী ৩৩৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন হয়েছেন সুনামগঞ্জ সদর উপজেলায়। এছাড়াও ছাতক উপজেলায় ২৮০ জন, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় ৭৫ জন, দিরাই উপজেলায় ৬৩ জন, শাল্লা উপজেলায় ৩৭ জন, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় ৩৭ জন, তাহিরপুর উপজেলায় ৩৯ জন, জামালগঞ্জ উপজেলায় ৬৮ জন, ধর্মপাশা উপজেলায় ২৪ জন, দোয়ারাবাজার উপজেলায় ১০২ জন এবং জগন্নাথপুর উপজেলায় ৯৬ জন আক্রান্ত হয়েছেন।
৯ হাজার ১২৮ জনের নমুনার পরীক্ষায় এ নিয়ে জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১১৫২ জন। নমুনা পরীক্ষার তুলনায় আক্রান্তের হার ১২ দশমিক ৬২ শতাংশ।