সেনাবাহিনী দ্রুত ও কোয়ালিটি সম্পন্ন কাজ করে -সেতুমন্ত্রী

সু.খবর ডেস্ক
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়ক ফোরলেন করার পরও কিছু কিছু কারণে মাঝে মাঝে তীব্র যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। তিনি বলেন, বাস্তবতাকে চাপা দিয়ে লাভ নেই। যা সত্য তা স্বীকার করেই সমাধান করতে হবে। আমরা বসে নেই, আমাদের উদ্যোগের কোন খাটতি নেই। রাস্তায় কোন সমস্যা নেই। তিনি বলেন, এরই মধ্যে ফেনীর ফোরলাইনের কাজ শেষ হয়ে গেছে। কুমিল্লার পদুয়া বাজারের ওভারপাসের কাজও শেষ হয়েছে। সেটি প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করেছেন। গত কয়েকদিন ধরে যে যানজট হচ্ছে তা ফেনীর ফতেপুরের রেলওয়ের ওভারপাস নির্মাণের জন্য মুলত হচ্ছে। এই কাজটি পিবিএল পেয়েছিলো। তারা সময় মতো কাজটি করতে পারছিল না, যে কারণে তারা বারবার আমাদের টার্গেট ফেল করেছিলো, যে কারণে ডেপোজিট ওয়ার্ক হিসাবে সেনাবহিনীকে কাজটি দিয়েছি। সেনাবাহিনী আন্তরিকতার সাথে কাজটি করার চেষ্টা করছে। সেনাবাহিনী কাজ দ্রুত করে এবং কোয়ালিটি সম্পন্ন কাজ করে। নির্দিষ্ট সময়ের আগেই কাজ শেষ করে। তিনি যানজটের কারণে দুর্ভোগের জন্য জনগণের কাছে দু:খ প্রকাশ করে বলেন, ফেনীর দুটি লেনের মধ্যে একটি লেন আজ খুলে দেয়া হয়েছে, ঈদের আগে আগে উপরের দুইলেন এবং নিচের দুইলেন দিয়ে যান চলাচল করলে যানজট সমস্যা হওয়ার আশংকা নেই। তিনি বলেন, আজকের মধ্যেই মহাসড়কের যানজট সমস্যা স্বাভাবিক হয়ে আসবে।
মঙ্গলবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের কাচঁপুরে ঢাকা চট্রগ্রাম মহাসগকের যানজট পরিস্থিতি পরিদর্শনে শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে এসব কথা বলেন। এ সময় মন্ত্রীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন হাইওয়ে পুলিশের ডিআইজি আতিকুল ইসলাম, নারায়ণগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বার্হী প্রকৌশলী আলিউল হোসেন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকতা ওয়ালিদ হোসেন প্রমূখ।
খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের আওয়ামীলীগের প্রার্থীর জয়ের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করে ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নারায়ণগঞ্জ, কুমিল্লা, রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মতো অবাধ, নিরপেক্ষ, সুষ্ঠ নির্বাচন খুলনায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে। খুলনার নির্বাচন সাংবাদিক ও পর্যবেক্ষকরা দেখছে। এখন পর্যন্ত কমপ্লিন করার মতো কোন অভিযোগ পাইনি।
ওবায়দুল কাদের বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার শাররিক অসুস্থতার বিষয় নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে কিছুক্ষণ আগে কথা বলেছি, বিএনপির যে ভাবে বলছে, তার শাররিক অবস্থা কি সে রকম কিনা না, এ ব্যাপারে স্বরাষ্টমন্ত্রী বলেছেন, তার বয়স হয়েছে, তারপর জেলখানা, সবকিছু মিলিয়ে তিনি সম্পুর্ণ সুস্থ এ কথা বলা যাবে না। তার অসুস্থতার জন্য যে যে চিকিৎসা ব্যবস্থা প্রয়োজন, সেটা কারাগারে নেয়া হচ্ছে। তার পরও (বেগম জিয়ার ) আরো উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজন কিনা সেটা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ ব্যাপারে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে স্বরাষ্টমন্ত্রী আমাকে জানিয়েছেন।
ওবায়দুল কাদের ঢাকা বারকাউন্সিল নির্বাচনে আওয়ামীলীগ ১৪ টি জয়লাভ করায় ইচ্ছাশ প্রকাশ করে বলেন, বারকাউন্সিল নির্বাচনের ১৪টি পদের মধ্যে ১২টি পদে আওয়ামীলীগ জয়ী হয়েছে। গত বছর নির্বাচনে ৮ টি পদ পেয়েছিলাম। এবার খুব ভাল করেছে আওয়ামীলীগ।
সাংকাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, মহাসড়কের চাদাঁবাজি আছে কিনা সেটা আমার জানা নেই। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে। তিনি হাইওয়ে পুলিশের ডিআইজিকে চাদাঁবাজির হচ্ছে কিনা তা খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়ে বলেন, সাংবাদিকদের কাছে চাদাঁবাজির কোন ডকুমেন্ট থাকলে দেয়ার জন্য অনুরোধ করেন।