স্কুলে অনুপস্থিত থাকায় এমপি রতনের স্ত্রী সাময়িক বরখাস্ত

স্টাফ রিপোর্টার
সুনামগঞ্জ পৌর শহরের তেঘরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা ও সুনামগঞ্জ ১ আসনের এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের দ্বিতীয় স্ত্রী তানভী ঝুমুরকে গত ১০ মাস যাবৎ স্কুলে অনুপস্থিত থাকায় সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।
গত বৃহস্পতিবার সুনামগঞ্জ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস থেকে তাকে এ বরখাস্ত আদেশ প্রদান করা হয়।
বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে তাহিরপুর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আকিকুর রেজা খান বলেন, শিক্ষিকা তানভী ঝুমুরকে গত ৮ জানুয়ারি থেকে সাময়িক বহিষ্কার দেখানো হয়েছে।
প্রসঙ্গত, সুনামগঞ্জ-১ আসনের এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের দ্বিতীয় স্ত্রী তানভী ঝুমুর ডেপুটেশনে সুনামগঞ্জ পৌর শহরের তেঘরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কর্মরত ছিলেন। কিন্তু গত ১০ মাস ধরে স্কুলে আসেননি তিনি। এক দিনের ছুটি নিয়ে দীর্ঘ সময় অনুপস্থিত থেকে বেতন তুলে নিচ্ছেন তানভী। এই বিষয়টি জেলা শিক্ষা অফিসের নজরে আসলে তানভী ঝুমুর কে চলতি বছরের ৮ জানুয়ারি থেকে সাময়িক বরখাস্ত দেখানো হয়।
জানা যায়, তানভী ঝুমুর শিক্ষিকা হিসেবে নিয়োগ পান তাহিরপুর উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের তরং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। প্রাথমিক শিক্ষা দফতরে তদবির করে তিনি ডেপুটেশনে আসেন সুনামগঞ্জ পৌর শহরের তেঘরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। চলতি বছরের ৭ জানুয়ারি অসুস্থতাজনিত কারণ দেখিয়ে একদিনের ছুটি নেন তিনি। কিন্তু এরপর থেকে আর স্কুলে আসেননি।
জানতে চাইলে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জিল্লুর রহমান বলেন, জিনাতুল তানভী ঝুমুর তাহিরপুরের তরঙ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক। সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার তেঘরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ডেপুটেশনে ছিলেন তিনি। বিনা অনুমতিতে ৬০ দিন অনুপস্থিত থাকলেই বিভাগীয় মামলা রুজু করতে হয়। তিনি ১০ মাস হয় বিনা অনুমতিতে অনুপস্থিত রয়েছেন। গত ৮ জানুয়ারি ২০১৯ থেকে তিনি অনুপস্থিত রয়েছেন। গত ৫ নভেম্বর তাকে সাময়িক বরখাস্তের চিঠি ইস্যু করা হয়।
জিনাতুল তানভী ঝুমুর’এর বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত প্রসঙ্গে সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন গণমাধ্যমে বলেছেন, তার স্ত্রী অন্ত:সত্বা, তিনি মাতৃত্বকালীন ছুটিতে আছেন।