স্বাধীনতা বিরোধীরা উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে চায় -এমএ মান্নান

স্টাফ রিপোর্টার
অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি বলেছেন, ‘মুক্তিযোদ্ধাদের জন্যই আমরা স্বাধীন দেশ পেয়েছি। তাঁদের ঋণ কখনো শোধ করা যাবে না। মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান জানাতে হবে। শেখ হাসিনার সরকার মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সরকার। স্বাধীনতা বিরোধীরা দেশের উন্নয়নকে বাঁধাগ্রস্ত করতে চায়, দেশকে অন্ধকারের দিকে নিয়ে যেতে চায়। তাই দেশের অগ্রযাত্রা ও উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে আওয়ামী লীগকে আবার ক্ষমতায় আনতে হবে।’
তিনি আরো বলেন, ‘বর্তমান সরকার উন্নয়নের সরকার। এই সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে বাংলাদেশে উন্নয়নের জোয়ার বইছে। ঘরে ঘরে যেমন শিক্ষার আলো ঠিক তেমনি বিদ্যুৎ’র আলো। আজ শিক্ষা ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের মধ্যদিয়ে শিক্ষা আরও এক কদম এগিয়েছে। এসব উন্নয়ন দেশের শত্রুরা সহ্য করতে পারছে না। তারা বার বার উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করছে। সামনে আমাদের দু:সময় আসছে। এই সময় আসার আগেই একতাবদ্ধ হওয়া উচিৎ সকল নেতা-কর্মীরা। আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনাকে শক্তি যোগান দিতে হবে। তাই সামনে যে নির্বাচন আসছে এই উন্নয়নকে যদি আপনারা ধরে রাখতে চান তাহলে আওয়ামী লীগকে পুনরায় ক্ষমতায় আনতে হবে।’
ইসলামগঞ্জ ডিগ্রি কলেজে জেলার প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা তোফাজ্জল হোসেন ওরফে উজির মিয়ার নামে নির্মিতব্য একটি ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। শুক্রবার বিকাল পাঁচটায় সদর উপজেলার ইসলামগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ প্রাঙ্গণে এই অনুষ্ঠান হয়। আলোচনা শুরুর আগে এই প্রতিষ্ঠানে সাহসি মুক্তিযোদ্ধা উজির মিয়ার নামে পাঁচ কোটি টাকা ব্যয়ে চারতলা একটি ভবন নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করে প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান।
সুনামগঞ্জ-৪ আসনের (সদর ও বিশ্বম্ভরপুর) সাংসদ পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন সংরক্ষিত নারী আসনের সাংসদ শামসুন্নাহার বেগম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক সাংসদ মতিউর রহমান, জেলা প্রশাসক মো. সাবিরুল ইসলাম, জেলা পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাড. আপ্তাব উদ্দিন, জেলা সিভিল সার্জন আশুতোষ দাশ, সুনামগঞ্জ মুক্তিযুদ্ধ চর্চা ও গবেষণা কেন্দ্রের আহবায়ক মুক্তিযোদ্ধা বজলুল মজিদ চৌধুরী, আ.লীগ নেতা অ্যাড. সফিকুল আলম, ইসলামগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ আলী আহমদ প্রমুখ।
অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন শিক্ষক মোক্তার আলী, শাহ্ মো. ফয়জুন্নুর আলী, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শাহাবুদ্দীন, আ.লীগ নেতা হোসেন আলী, জাপা নেতা শওকত আলী, স্থানীয় বাসিন্দা মোজাম্মেল হক, হাবিবুর রহমান।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার মো. আবু সুফিয়ান ও সমাজসেবক বিকাশ রঞ্জন চৌধুরী ভানু, কর্মজীবী লীগ নেতা শাহনুর আলমসহ রাজনৈতিক নেতা-কর্মী, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষানুরাগীবৃন্দ। অনুষ্ঠানে কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মো. জমির হোসেন, গীতা পাঠ করেন চয়ন কুমার তালুকদার। পরে মঞ্চে উপস্থিত অতিথিদের ফুল দিয়ে বরণ করেন আয়োজকরা।
অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কলেজের প্রভাষক মো. ফজলুল হক ও মো. জামাল হোসেন।
এ উপলক্ষে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের উদ্যোগে এলাকার ৩ শতাধিক দরিদ্র মানুষের মধ্যে বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা ও ওষুধপত্র প্রদান করা হয়। এ সময় চিকিৎসা সেবা দেন ডা: এনামুল হক খাঁন, ডা: আবুল কালাম, ডা: সুমন কান্তি চৌধুরী, ডা: বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী ও প্যারামেডিক চিকিৎসক অলি উল্লাহ সরকার ও আনোয়ার হোসেন।
এদিকে, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সাইনি কিডস্ মেধাবৃত্তির পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন এবং বৃত্তিপ্রাপ্তদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন।
বিশ্বম্ভরপুরের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মো. কপিল আহমদের সভাপতিত্বে বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন জেলা প্রশাসক মো. সাবিরুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. হারুনুর রশিদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সমীর বিশ্বাস, সাইনি কিডস মেধাবৃত্তি প্রদান সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা মো. তফাজ্জল হোসেন, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মো. তফাজ্জল হোসেন, জেলা মহিলাকল্যাণ কেন্দ্রের সভাপতি লুবনা আফরোজ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. বেনজির আহমদ, উপজেলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হরিশ চন্দ্র বর্মন, পলাশ ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. আবদুল কাইয়ূম, বিশ্বম্ভরপুর আর্দশ প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক দীলিপ কুমার বিশ্বাস, শিক্ষক শাহাজান মিয়া, অভিভাবক গঙ্গেশ দেবনাথ, শিক্ষার্থী দিয়া বর্মন প্রমুখ।
অপরদিকে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী, এমএ মান্নান বলেছেন, ‘বাংলাদেশ খুব দ্রুত ইতিবাচকভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। এগিয়ে যাচ্ছে জননেত্রী শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে। আমাদের এই এগিয়ে যাওয়াকে এক শ্রেণির মূর্খের দল বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা করছে। তারা ব্যর্থ হয়েছে, হচ্ছে এবং হবেও। একটি মূর্খমহল বিশেষ করে যুবকদের বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে। ভুল বুঝাচ্ছে উদীয়মান স্বপ্নবাজদের। যারা স্বপ্ন দেখে রক্তে অর্জিত এই দেশকে একদিন উন্নত দেশের সারিতে দাঁড় করাবে। দুঃখ হয় তাদের কথা ভেবে-তারা কি বুঝে না এই যুবকদের দলে তাদের সন্তান সন্ততিও আছে?’ শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে আমরা একটি স্বাধীন দেশ পেয়েছি বলে বিদ্যুৎ পেয়েছি, ইশকুল পেয়েছি, মত প্রকাশ করার স্বাধীনতা পেয়েছি। চাকরি করার অধিকার পেয়েছি। একটি লাল সবুজের পতাকা পেয়েছি- উল্লেখ করে যুবকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘কুচক্রী মূর্খের দল তোমাদের বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করবে। আশা করি তোমরা বিভ্রান্ত হবে না। খুব বেশি দিন দূরে নয়, যে দিন যুবকরা কারিগরি শিক্ষা, ক¤িপউটার শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে উন্নত জীবন যাপন করবে। মনে রাখবে, এই যুবকরাই একদিন দেশ পরিচালনা করবে। সুতরাং বিভ্রান্ত হওয়ার কোনো সুযোগ নেই।’ এম এ মান্নান আরো বলেন, ‘শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এই ধারা অব্যাহত রাখতে পুনরায় নৌকায় ভোট দিয়ে আওয়ামীলীগকে সরকার গঠন করার সুযোগ দিতে হবে।’ শুক্রবার সকাল ১১টায় দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর কর্তৃক আয়োজিত একটি একমাস ব্যাপী ক¤িপউটার প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. হারুন অর রশিদের সভাপতিত্বে ও উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা পেয়ার আহমদের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি তহুর আলী, সহ-সভাপতি মাওলানা আবদুল কাইয়ূম, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরি, দৈনিক উত্তর পূর্বের সদর ও দক্ষিণ সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি কাজি জমিরুল ইসলাম মমতাজ, দৈনিক সুনামগঞ্জের খবর ও দৈনিক যুগভেরী’র দক্ষিণ সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি ইয়াকুব শাহরিয়ার, প্রশিক্ষক জামিলন মজুমদার, প্রশিক্ষণার্থী আল মাহমুদ সোহেল ও স্মৃতি রাণী দাস।
এদিকে শুক্রবার বিকালে বিশ্বম্ভরপুরে সাইনি কিডস মেধা বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন,‘ সংকীর্ণ মন মানসিকতা বাদ দিয়ে দেশের স্বার্থে স্বাধীনতার পক্ষের দলকে উৎসাহ শক্তি দিন। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে আজ সার্বিকভাবে উন্নয়ন হচ্ছে। সরকার গত ৮ বছরে বাংলাদেশের ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ দিয়েছে, হাজার হাজার সড়ক নির্মাণ করেছে। নতুন নতুন বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজসহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হয়েছে। কৃষি শিক্ষা স্বাস্থ্য, বিদ্যুৎ, যোগাযোগসহ সকল ক্ষেত্রে উন্নয়ন হয়েছে। দেশ অনেক এগিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু একশ্রেণীর অপশক্তি লোকেরা দেশের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা করছে। এ অপশক্তিকে রুখতে হবে।’
প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন,‘ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিশু, শিক্ষর্থীসহ সাধারণ মানুষকে অতন্ত ভালোবাসেন। তিনি অংকারী নন, সময়ের মূল্য দিয়ে তিনি সর্বদা জনমানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন। ভোট গনতান্ত্রিক অধিকার, সংবিধান মানতে হবে।’
তিনি একটা দলকে ইঙ্গিত করে বলেন,‘ তাদের কথা মানলে নির্বাচনে আসবেন, না হলে ভোট হতে দিবে না। এটা হতে পারে না। যারা এসব কথা বলে তাদের বিচার করা উচিত।’
তিনি আরো বলেন‘, সরকার শিক্ষার্থীদের মাঝে দুপুরে বিদ্যালয়ে খাবার ব্যবস্থা করছেন। শিক্ষার প্রতি সরকার যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহণ করছে।’ মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ও সোনার বাংলা গড়তে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে আরো শক্তিশালী করার জন্য আহবান জানান।
বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা পরিষদ গণমিলনায়তনে সাইনি কিডস মেধাবৃত্তি সংগঠনের আয়োজনে ৪র্থ শ্রেণীর মেধা বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও পুরস্কার বিতরণ করা হয়।
বিশ্বম্ভরপুর বাজার বণিক সমিতির সভাপতি কপিল আহমদের সভাপতিত্বে ও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হরিশ চন্দ্র বর্মন রিপনের সঞ্চলনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান।
স্বাগত বক্তব্য রাখেন সাইনি কিডস মেধা বৃত্তির সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা তফাজ্জল হোসেন বাবুল। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মো. সাবিরুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মো. বরকত উল্লাহ খান, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. হারুনুর রশিদ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সমীর বিশ্বাস, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান তফাজ্জল হোসেন, জেলা প্রশাসকের সহধর্মী লুবনা আফরোজ, উপজেলা আওয়ামী লীগের লীগ সভাপতি বেনজির আহমদ মানিক, পলাশ ইউপি চেয়ারম্যান মো. আব্দুল কাইয়ূম, আর্দশ প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক দীলিপ কুমার বিশ্বাস, শিক্ষক প্রতিনিধি শাহাজান মিয়া, অভিভাবক গঙ্গেশ দেবনাথ, মেধাবী শিক্ষার্থী দিয়া বর্মন। মোট ৩২ জন বৃত্তিপ্রাপ্ত মেধাবী শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা ও তাদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।