স্বাস্থ্যবিধি মানতে নারাজ গণপরিবহনের যাত্রীরা

ইয়াকুব শাহরিয়ার, শান্তিগঞ্জ
শান্তিগঞ্জ উপজেলায় স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না গণপরিবহনের যাত্রীরা। বাস, মিনিবাস, সিএনজি (অটোরিকশা) ও লেগুনাসহ অন্যান্য গণপরিবহনে আরোহী যাত্রীরা স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারে একেবারেই উদাসীন। করোনা ভাইরাসের প্রকোপ বাড়লেও বিধিনিষেধ মানায় আগ্রহ বাড়েনি গণপরিবহন ব্যবহারকারী যাত্রীদের মাঝে। তবে সংক্রমণ রোধে স্বাস্থ্যবিধি মানার উপে জোড় দিয়েছে স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্টরা।
রবিবার দুপুর ১২টায় সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, উপজেলার শান্তিগঞ্জ বাজার, দিরাই রাস্তার মুখ (মদনপুর), নোয়াখালী বাজার, পাগলা বাজার ও ডাবর পয়েন্টের গণপরিবহনে কোনো যাত্রীরাই স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না। শারীরিক দূরত্ব তো দূরে থাক অধিকাংশ যাত্রীদের মুখে নেই মাস্কও। এছাড়াও গণপরিবহনে নির্দিষ্ট সংখ্যক যাত্রী বহন করার কথা থাকলেও সীটের বাইরে অতিরিক্ত যাত্রীও বহন করছে অনেকে। এতে যেমন বাড়ছে স্বাস্থ্যের ঝুঁকি তেমনি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার শঙ্কাও তৈরি হয়েছে।
গণপরিবহনের একাধিক চালকের সাথে কথা বলে জানা যায়, সরকারি নির্দেশনা মেনে চালক ও গণপরিবহন স্টাফরা গাড়ি চালাচ্ছেন। গাড়ি গন্তব্যে ছেড়ে যাওয়ার আগে কিংবা গাড়িতে উঠার আগে যাত্রীদের মাস্ক ব্যবহার, শারিরীক দূরত্ব মানার নির্দেশনা দিয়ে থাকেন। কিন্তু যাত্রীরা মাস্ক ব্যবহার করাসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মানতে তেমন আগ্রহ দেখান না।
সিলেট থেকে ছেড়ে আসা সুনামগঞ্জগামী একটি যাত্রীবাহী বাসের চালক সুশীল দেব। তিনি জানান, আমরা বার বার যাত্রীদের মাস্ক ব্যবহার করার কথা বলেছি। কিন্তু যাত্রীরা কোনোভাবেই মাস্ক ব্যবহার করতে চান না। তারা যদি মাস্ক ব্যবহার করেন না, আমরা তো জোরপূর্বক তাদের মাস্ক ব্যবহার করাতে পারি না। বেশি আইন দেখালে যাত্রী আমার বাসে উঠবেন না।
বাস-মিনিবাস ১৮৬৬-এর অন্তর্ভুক্ত সড়ক উপ-কমিটির সভাপতি হাজি লায়েক মিয়া বলেন, আগামীকাল (আজ) থেকে আমরা কঠোর হবো। যাত্রীদের অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। না হলে আমরা যাত্রী গাড়িতে তুলবো না। সব চালক, হেল্পারকে এ নির্দেশনা পৌঁছে দেওয়া হবে।
এ ব্যপারে শান্তিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা (টিএইচও) ডা. জসিম উদ্দিন শরিফী বলেন, আমরা মানুষকে সচেতন করতে, টিকা গ্রহণ করতে প্রচারাভিযান অব্যাহত রেখেছি। উপজেলা প্রশাসনকে অনুরোধ করেছি যেনো পুলিশ প্রশাসনের সমন্বয়ে স্বাস্থ্যবিধি মানাতে একটি কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করেন। আমরা আমাদের দিক থেকে কাজ করে যাচ্ছি।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আনোয়ার উজ জামান বলেন, আমরা কাজ করছি। আজ (রবিবার) থেকে মাঠ পর্যায়ে কাজ আরো বাড়াবো। শুধু গণপরিবহন নয় সব ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। আর গণপরিবহনে অতিরিক্ত যাত্রী বহন করার কোনো নিয়ম নেই, যত সিট আছে তত যাত্রী বহন করতে হবে।