হযরত গরম দেওয়ান (রহ:) মোকামের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে সভা

স্টাফ রিপোর্টার
সদর উপজেলার জাহাঙ্গীরনগর ইউনিয়নের আমপারা বাজারের পাশে হযরত গরম দেওয়ান (রহ:) মোকামের মোটা অংকের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে কমিটির বর্তমান কোষাধ্যক্ষ নুরুল গণীর বিরুদ্ধে সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার সকালে আমপারা বাজারে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। কমিটির সদস্য ও ৮ গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত একাধিক সভায় নুরুল গণী উপস্থিত না হওয়ায় আগামী বুধবার পুনরায় সভা আহ্বান করা হয়েছে।
সভায় বক্তারা বলেন,‘হযরত গরম দেওয়ান (রহ:) মোকামের দুই বছর মেয়াদী বর্তমান ব্যবস্থাপনা কমিটির কোষাধ্যক্ষ নুরুল গণী মোটা অংকের টাকা আত্মসাত করেছেন। নুরুল গণীর বড় ভাই ওমরগণী মোকামের খাদেম। বিগত দুই বছর যাবত দায়িত্ব পালনকালে কমিটির অন্যান্য সদস্যদের আয়-ব্যয়ের হিসাব বুঝাতে রাজি নন তাঁরা। সভায় উপস্থিত থেকে হিসাব দেওয়ার কথা জানালেও কমিটির অন্যান্য সদস্য ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সাথে অশালীন আচরণ করেন তাঁরা।’
সভায় কমিটির সদস্য ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী বুধবারের সভায় মোকাম ব্যবস্থাপনা কমিটির কোষাধ্যক্ষ নুরুল গণীর উপস্থিতি নিশ্চিত করার জন্য জাহাঙ্গীরনগর ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান মো. আব্দুল কাদিরকে প্রধান করে ৭ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়।
সভায় সভাপতিত্ব করেন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মো. আব্দুল কাদির। এতে বক্তব্য রাখেন আমপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. হারুনুর রশিদ, স্থানীয় আ.লীগ নেতা মো. তাজুল ইসলাম, ইউপি সদস্য ইসমাইল হোসেন, সাবেক ইউপি সদস্য সামাদ মিয়া, শিক্ষক হযরত আলী, মোকাম ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি মো. সাদেক আলী, সাধারণ সম্পাদক মো. আক্কাছ আলী, সদস্য ফারুক মিয়া, কেরামত আলী, মো. মহিনুর ইসলাম, লিটন আহমদ, ফারুক হোসেন, মোকামের সাবেক খাদেম রাজানগর গ্রামের নুরুল গণী প্রমুখ।
সভায় রেজুলেশন কপিতে ঘাসীগাঁও, আমপারা, রাজানগর, মীরেরচর, কৃষ্ণনগর, কোনাগাঁও, গোদীগাঁও ও নৈদারখামার গ্রামের ৮৭ জন গণ্যমান্য ব্যক্তির উপস্থিতির স্বাক্ষর করেন।
এ ব্যাপারে বর্তমান কমিটির কোষাধ্যক্ষ নুরুল গণী বলেন,‘হযরত গরম দেওয়ান (রহ:) মোকামের আয়-ব্যয়ের হিসাব দিতে আমি বাধ্য। সকল মানুষের সাথে সভায় বসতেও আমি রাজি। কেননা, আমাকে সমাজের মানুষ নিয়ে চলতে হবে। কিন্তু আমি এর আগেও কয়েক বার সভা ডেকেছি হিসাব দিতে। এ সময় কেউ সভায় আসেননি। তাই আমিও তাঁদের ডাকে সভায় যাইনি।’