হোস্টেলে আসন সংকট নতুন হোস্টেলের দাবি

স্টাফ রিপোর্টার
জেলার মেয়েদের উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সুনামগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজের হোস্টেলে থাকার আসনের সংখ্যা অপ্রতুল। প্রায় আড়াই হাজার শিক্ষার্থীর কলেজটিতে নতুন হোস্টেল নির্মাণের দাবি জানিয়েছেন কলেজে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা।
জানা যায়, ১১ উপজেলা থেকে উচ্চ শিক্ষা নিতে আসা শিক্ষার্থীদের হোস্টেলে আসন না পেয়ে বিপাকে পড়তে হয়। এতে শিক্ষার্থীদের দূরবর্তী উপজেলা থেকে প্রতিদিন কলেজে এসে ক্লাস করা কষ্টসাধ্য ও ব্যয়বহুল হয়ে উঠেছে। তাই অনেকে বাসা ভাড়া নিয়ে মেস করে আছেন। স্কুলের গন্ডি পেরিয়ে যারা আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল তারা ঝরে পড়ছেন কলেজে এসেই।
কলেজ সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে ছাত্রীদের থাকার জন্য দুটি হোস্টেল রয়েছে। একাডেমিক ভবনের দু’ তলায় রয়েছে ৪৮ জনের থাকার জায়গা। ৪ তলা বিশিষ্ট আরেকটি ভবনে ৬২ জন ছাত্রীর থাকার ব্যবস্থা আছে। দুই হোস্টেল মিলিয়ে প্রায় ১১০ জন ছাত্রীকে জায়গা দিতে পারেন কলেজ কর্তৃপক্ষ। অধিকাংশ ছাত্রীই হোস্টেলে সিট পাওয়া থেকে বঞ্চিত থাকেন।
২৫০০ শিক্ষার্থীর মধ্যে যারা হোস্টেলে
থাকার জন্য আবেদন করেন সে সম্পর্কে জানা যায়, আবেদনকৃত শিক্ষার্থীদের ফলাফল ও দূরত্ব বিবেচনা করে হোস্টেলে আসন দেয়া হয়। এক্ষেত্রে অনেকেই হোস্টেলে থাকার মতো অবস্থা হলেও সীমিত আসন হওয়ার সীট বঞ্চিত থাকেন।
দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী শারমিন জান্নাত তন্নী বলেন, আমি ধর্মপাশা উপজেলা থেকে এসেছি। এখন হোস্টেলে থেকে পড়াশুনা করছি। আমরা চাই আমাদের কলেজে হাস্টেলের সংখ্যা বৃদ্ধি করা হোক।
একই শ্রেণির শিক্ষার্থী তাবাসুম মনির জিনিয়া বলেন, দূরের শিক্ষার্থীরা হোস্টেলে থেকে পড়াশুনা করতে চায়। কারণ একজন মেয়ের জন্য কলেজ হলো নিরাপদ স্থান। গার্ডিয়ানও চায় তার মেয়ে ভালো থাকুক। বর্তমানে ২ টি হোস্টেল চাহিদা অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের থাকার জন্য যথেষ্ট নয়। এরজন্য হোস্টেলের সংখ্যা বৃদ্ধি করা প্রয়োজন।
ইতিহাসের শিক্ষক রাসেল আহমদ বলেন, ক্যাম্পাসে নতুন করে হোস্টেল করার জায়গা নেই। হোস্টেলের জন্য নতুন বরাদ্দ এসেছিলো কিন্তু জায়গা না থাকার কারণে সেটি হয়নি।
হোস্টেল সুপার সমাজবিজ্ঞানের শিক্ষক শামীমুল হাসান বলেন, অনেক শিক্ষার্থী হোস্টেলে থাকার জন্য আবেদন করে। যোগ্যদের থাকার ব্যবস্থা করে দিই আমরা। সুনামগঞ্জ হাওর অধ্যুষিত এলাকা হওয়ার এখনো অনেক এলাকা থেকে যোগাযোগের ব্যবস্থা ভালো হয়ে ওঠেনি। এজন্য মেয়েদের থাকার জন্য হোস্টেলের সংখ্যা বৃদ্ধি করা জরুরি। বর্ধিত ক্যাম্পাসে ছাত্রীদের থাকার ব্যবস্থা করা যেতে পারে। তবে সেখানে অভ্যন্তরিণ জটিলতা রয়েছে।