১৫ মে একটি বিষন্ন দুপুর ছিলো

মানবেন্দ্র কর
এ এক এমন দুপুর
যার প্রখরতা নেই
তীব্রতা নেই
বড্ড ভীষণ অবসর আর
আলসেমি নিয়ে বসে আছে
যেনো ছুটি চেয়ে ছুটি পায়নি
তাই বাড়ি যায়নি
বৃত্তের ভেতর বন্দি এই দুপুরকে দেখলে
আমার ডানা ভাঙা শালিকের কথা মনে পড়ে যায়
যে আর উড়তে পারেনি
উঠে দাড়াঁতে পারেনি
শুধু নদীর মতো বয়ে বয়ে গেল
ছন্দের মতো কয়ে কয়ে গেল
শব্দের ভেতর অর্থ হয়ে রয়ে গেল
একটা বিষন্ন দুপুর
একটা ডানা ভাঙা শালিক
আর
একটা ছেলের মধ্যে কতো মিল? আশ্চর্য !!