৭৭৩ পরিবারে ঈদ উপহার দিয়েছে পশ্চিম পাগলা ইউনিয়ন প্রবাসী পরিষদ

‌দ. সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি
দক্ষিণ সুনামগঞ্জের ‘পশ্চিম পাগলা ইউনিয়ন প্রবাসী পরিষদের’ পক্ষ থেকে ঈদ উপহার বিতরণ করা হয়েছে। ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ডের ৭৭৩টি পরিবারের মাঝে ৫০০ টাকা করে নগদ অর্থ উপহার দেওয়া হয়।
করোনা ভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়েপড়া অসহায়-দরিদ্র পরিবারের মাঝে ঈদ উল ফিতরের উপহার হিসেবে এ অর্থ বিতরণ করা হয়। গত রোববার থেকে বুধবার পর্যন্ত সময়ে ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডের স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকদের সহায়তায় তৈরি করা তালিকা অনুযায়ী উপকারভোগী ব্যক্তিদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে উপহারের এ অর্থ পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। গত চারদিনে গণমাধ্যমকর্মী জামিউল ইসলাম তুরান, পাগলা সরকারি মডেল হাইস্কুল এন্ড কলেজের কলেজ শাখার প্রভাষক ও গণমাধ্যমকর্মী ইয়াকুব শাহরিয়ার, গণমাধ্যমকর্মী নাহিদ আহমদ, নোহান আরেফিন নেওয়াজ, আলাল হোসেন, স্বেচ্ছাসেবী এনাম মির্জা, হেলাল আহমদ, মুবিন সিদ্দিকী, নেছার আলম, রমা পাল, আতিকুল ইসলাম, নিপেস সূত্রধর ও রুয়েল আহমদের সহযোগিতায় প্রবাসীদের পাঠানো মোট ৩,৮৬,৫০০/- (তিন লক্ষ ছিয়াশি হাজার পাঁচশত) টাকা সুষ্ঠুভাবে পৌঁছে দেওয়ার কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এ কাজের জন্য পশ্চিম পাগলা ইউনিয়নের সকল প্রবাসীদের অভিনন্দন জানিয়েছেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি।
জানা যায়, করোনা ভাইরাসের কারণে সমস্ত পৃথিবীতে মানুষ অসহায় হয়ে পড়েছে। কর্মহীন হয়ে আছে বাংলাদেশের মধ্যভিত্ত ও নিম্ন আয়ের মানুষেরা। গ্রাম পর্যায়ে দেশের মানুষেরা বেশি অসুবিধার মধ্যে পড়ায় তাদের সহযোগিতা করার প্রয়োজন বোধ থেকে কাজ শুরু করেন পশ্চিম পাগলা ইউনিয়নের প্রবাসী তরুণ-উদ্যোমীরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে একটি গ্রুপ খুলে টাকা সংগ্রহের কাজ শুরু করে পশ্চিম পাগলা প্রবাসী ইউনিয়ন প্রবাসী পরিষদ। ১৪ মে পর্যন্ত ১৮টি দেশ থেকে মোট ৯৭জন প্রবাসী মিলে ৩,৮৭,০৪০ (তিন লক্ষ সাতাশি হাজার চল্লিশ) টাকা অনুদান পাঠান। এই টাকাই উপহার হিসেবে পৌঁছে দেওয়া হয় ৭৭৩টি পরিবারে। প্রবাসী পরিষদ গ্রুপে জানানো হয়, ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে ৭৩, ২নং ওয়ার্ডে ১৩২, ৩নং ওয়ার্ডে ১২৫, ৪নং ওয়ার্ডে ১৭৫, ৫নং ওয়ার্ডে ৭৫, ৬নং ওয়ার্ডে ৬৩, ৭নং ওয়ার্ডে ৬০, ৮নং ওয়ার্ডে ৩০ ও ৯নং ওয়ার্ডে ৪০টি পরিবারের মাঝে এ অর্থ দেওয়া হয়।
প্রবাসী পরিষদের কয়েকজন উদ্যোক্তাদের মাঝে অন্যতম ইংল্যান্ড প্রবাসী এহসান মির্জা, ফ্রান্স প্রবাসী আতিকুর রহমান আতিক, ব্রাজিল প্রবাসী আইনুল হক বলেন, ‘আমরা দেশের মানুষের কষ্ট বুঝি। এখন তারা কর্মহীন। যারা দরিদ্র
বা দিন আনে দিন খায় তাদের অবস্থা একেবারেই ভালো না। এমন একটি বোধ থেকে আমরা এই তিনজনসহ আরো কয়েকজন প্রবাসী মিলে এমন একটি উদ্যোগ নেই। খুব ভালোই সাড়া পেয়েছি। এতোগুলো টাকা এতো পরিবারের মাঝে সমবণ্টন করতে পেরে আত্মতৃপ্তি পাচ্ছি। এটি শুধু আমাদের একার অনুভূতি না, যারা টাকা দিয়ে আমাদের সাথে শরীক হয়েছেন প্রত্যেকের অনুভূতি। দেশে আমাদের ইউনিয়নের পাঁচজন সাংবাদিকসহ আরো কিছু স্বেচ্ছাসেবী প্রচুর পরিশ্রম করেছেন কাজটি বাস্তবায়ন করতে। তাদের প্রত্যেককে ধন্যবাদ। আর প্রবাসী যারা অংশগ্রহণ করেছেন তাদের সকলের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা।’
পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, এটি খুবই প্রসংসনীয় একটি উদ্যোগ। পশ্চিম পাগলা ইউনিয়নের সকল প্রবাসীদের প্রতি অসংখ্য ধন্যবাদ। তারা যে নিজ ইউনিয়নের মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন এ জন্য তাদের সকলকে আলাদা করে ধন্যবাদ।
পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান ছাড়াও দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক আহমদ, ভাইস চেয়ারম্যান প্রভাষক নূর হোসেন, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেবুন নাহার শাম্মী, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান হাজি আবুল কালাম, কেন্দ্রিয় যুবদেলের সহ-সভাপতি আনছার উদ্দিন, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হাজি আব্দুল হেকিম, পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নানের রাজনৈতিক সহকারী ও উপজেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক মো. হাসনাত হোসেন, পশ্চিম পাগলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নূরুল হক, সাবেক চেয়ারম্যান রেজাউল আলম নিক্কু, জগলুল হায়দার, সুনামগঞ্জ সদর আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তেরাব আলীসহ অন্যান্যরা এমন একটি উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন।
উল্লেখ্য, এপ্রিল মাসের ২৭ তারিখ থেকে কার্যক্রম শুরু করেছিলো পশ্চিম পাগলা ইউনিয়ন প্রবাসী পরিষদ।