অতি দরিদ্রদের জন্য চাল ও নগদ অর্থ বরাদ্দ

স্টাফ রিপোর্টার
অতি দরিদ্র, দিনমজুর, কর্মহীন বেকার, অস্বচ্ছল ব্যক্তি যারা করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ সংকটকালীন সময়ে বেকার হয়ে পড়ছেন তাদের জন্য জি আর চাল ও জি আর নগদ অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। আগামী শনিবার হতে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাধ্যমে এটি বিতরণ কার্যক্রম শুরু হবে।
জেলায় ১৩০ মে. টন চাল এবং ৯ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা বরাদ্দ দিয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর। ভারপ্রাপ্ত জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা রাহুল চন্দ স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি বরাদ্দপত্র জেলা প্রশাসনের ওয়েবসাইট ও জেলা প্রশাসকের ফেসবুক পেজে বৃহস্পতিবার এই তথ্য প্রকাশ করা হয়।
সুনামগঞ্জ সদর, ছাতক, দিরাই ও ধর্মপাশা উপজেলায় ১৫মে. টন করে চাল, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ, বিশ^ম্ভরপুর, জগন্নাথপুর, দিরাই, শাল্লা, দোয়ারাবাজার, তাহিরপুর উপজেলায় ১০ মে. করে চাল উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর উপ-বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে। এছাড়াও সুনামগঞ্জ সদর, ছাতক, দিরাই ও ধর্মপাশা উপজেলায় ১ লক্ষ টাকা করে এবং দক্ষিণ সুনামগঞ্জ, বিশ^ম্ভরপুর, জগন্নাথপুর, দিরাই, শাল্লা, দোয়ারাবাজার, তাহিরপুর উপজেলায় ৮০ হাজার টাকা করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর উপ-বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে।
প্রতিটি ইউনিয়নে যেসব লোকজন কাজ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় না খেয়ে আছেন ইউপি চেয়ারম্যানগণ তাদের তালিকা করে এসব বরাদ্দ প্রদান করা হবে। পরিবার প্রতি ১০ কেজি চাল, ৫ কেজি আলু ও ২ কেজি ডাল প্যাকেট দেয়া হবে। উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রতি উপ বরাদ্দ প্রদান করবেন। খাদ্যবান্ধব কর্মসূচি এবং ভিজিডির আওতার বাইরের পরিবার অগ্রাধিকার পাবেন। আগামী শনিবার থেকেই চাহিদার ভিত্তিতে বিভিন্ন ইউনিয়নে বিতরণ কার্যক্রম শুরু হবে। কোন মাঠে উপকারভোগীদের কমপক্ষে এক মিটার দূরত্বে বসিয়ে তাদের হাতে এসব দেয়া হবে।