অর্ধেকেরও বেশী শনাক্ত সদর ও ছাতকে

স্টাফ রিপোর্টার
সুনামগঞ্জ জেলায় গত শুক্রবার পর্যন্ত ৮ হাজার ৩শত ৭৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৭ হাজার ৯শত ৮৪ জনের। করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৯৩১ জন। নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় আক্রান্তের হার ১১.৬৬ শতাংশ। এদিকে জেলায় মোট আক্রান্তের অর্ধেকেরও বেশী শনাক্ত হয়েছেন সুনামগঞ্জ সদর ও ছাতক উপজেলায়। এই দুই উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪৭৭ জন। যা মোট আক্রান্তের ৫১ দশমিক ২৩ শতাংশ। মোট আরোগ্য লাভ করেছেন ৩২২ জন। শুক্রবার রাতে নতুন করে সুনামগঞ্জে আরও ২১ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। নতুন করে আক্রান্তদের মধ্যে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার ৪ জন, দোয়ারাবাজার উপজেলার ৩ জন, শাল্লা উপজেলার ২ জন, জগন্নাথপুর উপজেলার ৮ জন, দিরাই উপজেলার ৩ জন, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ১ জন।
জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সুনামগঞ্জে নতুন করে হোম কোয়ারেন্টাইনে গেছেন ১২ জন। কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন ৪৫ জন। আইসোলেসনে নেয়া হয়েছে ১৫ জনকে। আরোগ্য লাভ করেছেন আরও ২০ জন। মোট আইসোলেসনে গেছেন ৯১০ জন, প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে হেছেন ৩৪ জন। অদ্যাবদি মোট কোয়ারেন্টিনে এসেছেন ৬০১০ জন। পাশাপাশি কোয়ারেন্টিন সম্পন্ন করেছেন ৫৯৫১ জন।
সুনামগঞ্জ সদর উপজেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৩৪ জন। আরোগ্য লাভ করেছেন ৫৬ জন। দোয়ারাবাজার উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮২ জন। সুস্থ হয়েছেন ৩৮ জন। দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬৭ জন। সুস্থ হয়েছেন ১৬ জন। করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন ১ জন। দিরাই উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩২ জন। সুস্থ হয়েছেন ৯ জন। শাল্লা উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩৭ জন। সুস্থ হয়েছেন ১১ জন। বিশ^ম্ভরপুর উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩৪ জন। সুস্থ হয়েছেন ২২ জন। তাহিরপুর উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩৫ জন। সুস্থ হয়েছেন ১৬ জন। জামালগঞ্জ উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬৪ জন। সুস্থ হয়েছেন ২৭ জন। করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন ১ জন। ধর্মপাশা উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৯ জন। সুস্থ হয়েছেন ১৮। জগন্নাথপুর উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮৪ জন। সুস্থ হয়েছেন ৩১। ছাতক উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৪৩ জন। সুস্থ হয়েছেন ৭৮ জন। করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন ৩ জন।