আইএমএফের ঋণে সাময়িক স্বস্তি আসবে: পরিকল্পনামন্ত্রী

সু.খবর ডেস্ক
আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) ঋণ পাওয়া গেলে অর্থনীতিতে সাময়িক স্বস্তি আসবে বলে মনে করেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান। বুধবার আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) একটি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এমন মন্তব্য করেন মন্ত্রী।
সম্প্রতি চা শ্রমিকদের মজুরির বিষয়ে মন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন আইএলও প্রতিনিধিরা। রাজধানীর আগারগাঁওয়ে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠকে আইএলওর চার সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন সংস্থার ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প (এসএমই) বিষয়ক বিশেষজ্ঞ গুনজান দালাকোটি।
বৈঠক শেষে আইএমএফের ঋণের বিষয়ে প্রশ্নের জবাবে এমএ মান্নান বলেন, ‘আমার পকেটে ১০০ টাকা আছে, কেউ ১০ টাকা ধার দিলে কিছুটা ভালো। আইএমএফের ঋণেও কিছুটা সাময়িক স্বস্তি মিলবে। তবে দেশ অর্থনৈতিকভাবে অস্বস্তিতে নেই।’ দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, মূল্যস্ম্ফীতি বাড়ার কারণ দেশের বাজারের ব্যর্থতা নয়। স্থানীয় বাজার এখন বিশ্ববাজারের সঙ্গে সম্পর্কিত। আন্তর্জাতিক বাজারের প্রভাব পড়েছে স্থানীয় বাজারে। তবে মূল্যস্ম্ফীতি যে হারে বেড়েছে, মজুরি সে হারে বাড়েনি।
আইএলওর সঙ্গে বৈঠকের বিষয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, তাঁরা চা শ্রমিকদের মজুরি বাড়ানোর কথা বলেছেন। তাঁদেরকে বলা হয়েছে, সম্প্রতি চা শ্রমিকদের মজুরি বাড়ানো হয়েছে। সামনে আরও বাড়ানো হবে। চা শ্রমিকরা বাগানের ভেতরেই বাস করেন। এ সুবিধারও একটি আর্থিক মূল্য আছে। অনেকে মনে করেন, শ্রমিকদের বাগানে রাখা হয় কাজে বাধ্য করার জন্য। আসলে ব্যাপারটি এমন নয়।
সূত্র : সমকাল