আক্তাপাড়া ২ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ

শান্তিগঞ্জ অফিস
শান্তিগঞ্জ উপজেলার আক্তাপাড়া ২ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা ছাদেকা বেগমের বিরুদ্ধে দুর্নীতি, অর্থ আতœসাৎ ও অসদাচরণ সহ নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।
গত ১০ আগস্ট উপজেলার শিমুলবাঁক ইউনিয়নের আক্তাপাড়া গ্রামের আব্দুল মালিকের ছেলে অজুদ মিয়া সহ ১০৫ জনের স্বাক্ষরিত অভিযোগ শান্তিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর, ১১ আগস্ট পরিকল্পনা মন্ত্রী বরাবর এবং ২৪ আগস্ট ডাকযোগে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, দুর্নীতি দমন কমিশন অফিস সিলেট বরাবরে প্রদান করা হয়েছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, স্লিপের বরাদ্দকৃত ৫০ হাজার টাকার মধ্যে ১৫ হাজার টাকার কাজ করানো হয়েছে। রুটিন মেইন্টেনের ৪০ হাজার টাকার মধ্যে ১৩ হাজার টাকার কাজ করানো হয়েছে। ২০২০ সালে বিদ্যালয়ের জন্য বরাদ্দকৃত ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার মধ্যে মাত্র ৯০ হাজার টাকার কাজ করিয়ে বাকী টাকা আতœসাৎ করেছেন ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা।
এছাড়া শিক্ষার্থীদের জন্মনিবন্ধনের নামে ১০০ থেকে ১ হাজার টাকা নেন তিনি। মাসের পর মাস গেলেও ম্যানেজিং কমিটির কোন মিটিং করেন না প্রধান শিক্ষক। এসকল দুর্নীতির কারণে এই শিক্ষিকাকে ২০০৯ সালে বিদ্যালয় থেকে অপসারণ করা হয়েছিল বলেও অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের অভিভাবকে বিভিন্ন সময় গালিগালাজ, বিগত ম্যানেজিং কমিটির সভাপতিকে স্কুলে ডেকে এনে অপমান, স্কুলের সহকারী শিক্ষক উসমান গনিকে প্রতিনিয়ত অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ সহ নানা বিষয় অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।
অভিযোগের বিষয়ে আক্তাপাড়া ২ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা ছাদেকা বেগম জানান, এসব অভিযোগ মিথ্যা, আমি কোন টাকা আত্মসাৎ করি নি।
এ ব্যাপারে শান্তিগঞ্জ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বজলুর রহমান জানান, অভিযোগ পেয়েছি, বিষয়টি তদন্তাধীন রয়েছে।
এ ব্যাপারে শান্তিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আনোয়ার উজ জামান জানান, এ বিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।