আনন্দের সঙ্গে শিখবে শিক্ষার্থীরা: শিক্ষামন্ত্রী

সু.খবর ডেস্ক
শিক্ষার মান উন্নয়নে কারিকুলাম সংশোধন, মূল্যায়ন পদ্ধতি পরিবর্তন, শিক্ষক প্রশিক্ষণ, লাগসই প্রযুক্তি ব্যবহার, অবকাঠামোগত উন্নয়ন করা বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপুমনি। আর সে জন্য বই পড়ে শুধু পড়াশোনা নয়, বাচ্চারা খেলাধুলার মধ্যে শিখবে, আনন্দের মধ্য দিয়ে শিখবে, কাজ কর্ম করে শিখবে এবং সমাজ অর্থাৎ কমিউনিটির বিভিন্ন কাজের মধ্য দিয়ে শিখবে।
শিক্ষার মান উন্নয়নে সবকিছু করা হচ্ছে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, আগেও শিক্ষার মানের দিকে আমাদের নজর ছিল, কিন্তু তখন সংখ্যাটাও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ছিল। আর এখন মানটাই সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। সে জন্য পাঠ্যবইয়ের কারিকুলাম সংশোধন, মূল্যায়ন পদ্ধতি পরিবর্তন, শিক্ষকদের প্রশিক্ষণসহ অবকাঠামোর উন্নয়ন করা হচ্ছে। আমরা বিশ্বাস করি এর মধ্য দিয়েই মানসম্মত শিক্ষা দেওয়া সম্ভব।
শনিবার (০২ অক্টোবর) দুপুরে চাঁদপুর স্টেডিয়ামে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত তৃণমূল প্রতিনিধি সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে যোগদান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, এই কারিকুলামে নতুন কিংবা ভিন্ন কোনো পদ্ধতি চলে আসবে তা নয়। আমাদের বর্তমান কারিকুলামে যেগুলো আছে, সেগুলোও থাকবে এবং যেখানে যেটি ভাল কাজ করবে, সেটি আমরা গ্রহণ করছি। এখানে শিক্ষকদের যেমন প্রশিক্ষণ দেব, আমাদের টিচার্স গাইড যেগুলো, সেগুলো তৈরি হবে। আশাকরি শিক্ষকদের জন্য এটি তত কঠিন কিছু হবে না এবং শিক্ষকদের ব্যাপক প্রশিক্ষণের প্রস্তুতি ইতোমধ্যেই নিয়েছি ও চলমান আছে। আশাকরি কোনো সমস্যা হবে না।
মন্ত্রী বলেন, শিক্ষার মান উন্নয়নের জন্য সব কিছুই করা হচ্ছে। আপনারা জানেন জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার ২০০৯ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত ১০ বছর সকল শিশুকে শিক্ষায় আনবার জন্য কাজ করে গেছে। এখন যখন আমরা সকলকে শিক্ষার আওতায় আনতে পেরেছি, এখন আমরা শিক্ষার মানটাকে উন্নত করার জন্য বিশেষভাবে গুরুত্ব দিচ্ছি।
তৃণমূল প্রতিনিধি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু নঈম পাটওয়ারী দুলালের সঞ্চলনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন ড. মহিউদ্দন খান আলমগীর এমপি, সাবেক মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম, মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম এমপি। প্রধান বক্তার বক্তব্য দেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি।
বিশেষ বক্তার বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট নজিবুল্লাহ হিরু, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ, মুহম্মদ শফিকুর রহমান এমপি, অ্যাডভোকেট নুরুল আমিন রুহুল এমপি ও সাবেক এমপি ড. মোহাম্মদ শামছুল হক ভূঁইয়া।
সূত্র : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম