আমি চাপ নিয়ে কাজ করি না: র‌্যাব ডিজি

সু.খবর ডেস্ক
কিশোর অপরাধ নিয়ন্ত্রণে রাজনৈতিক কোনো চাপ আছে কি-না সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে র‌্যাবের মহাপরিচালক-ডিজি চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন বলেছেন, ‘আমি চাপ নিয়ে কাজ করি না। এসব চাপ আমার কাছে আসেও না। আইনের বাইরে ও আইনের সজ্ঞায় কেউ অপরাধী হলে র‌্যাব তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আগেও কুণ্ঠিত হইনি, আগামীতেও হবো না।’
এসময় তিনি কিশোর অপরাধ নিয়ন্ত্রণে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি অভিভাবক, শিক্ষকসহ সমাজের বিভিন্ন পেশার মানুষকে সমন্বিত কাজ করার আহ্বান জানান।
শনিবার দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে র‌্যাব ডিজি এই কথা বলেন। রাজধানীর তেজগাঁও জাতীয় চলচিত্র উন্নয়ন করপোরেশনে (এফডিসি) ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির আয়োজনে ‘কিশোর অপরাধ বৃদ্ধিতে সোশ্যাল মিডিয়ার অপব্যবহার’ নিয়ে এক ছায়া সংসদ বিতর্ক প্রতিযোগিতায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন র‌্যাবপ্রধান। পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।
চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, ‘একেক সময় একেক অপরাধ দেখা যায়। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কারণে অপরাধগুলো নিয়ন্ত্রণে থাকে। একটা সময় ইভটিজিং বেড়ে গিয়েছিল, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতায় তা এখন নিয়ন্ত্রণে। জঙ্গিবাদ এখন নিয়ন্ত্রণে। অপরাধ করে কেউ পার পাবে না। কিশোর অপরাধ নিয়ন্ত্রণে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি অভিভাবক, শিক্ষকসহ সমাজের বিভিন্ন পেশার মানুষকে সমন্বিতভাবে কাজ করতে হবে। বিশেষত, পরিবারে সন্তানদের প্রতি বাবা মায়ের নজরদারি বাড়াতে হবে। সোশ্যাল মিডিয়ার অপব্যবহার প্রতিরোধে সংশ্লিষ্ট সকলকে সতর্ক থাকতে হবে। সৃজনশীল কাজে সম্পৃক্তকরণের মাধ্যমে কিশোর অপরাধ হ্রাস করা সম্ভব।’
র‌্যাবপ্রধান বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে আমরা অনেক দূর এগিয়ে গিয়েছি। অনেক দেশের চাইতে আমরা পার ক্যাপিটাল ইনকামে এগিয়ে রয়েছি। নারী উন্নয়য়ে আমরা এগিয়ে রয়েছি। ইন্টারনেটে সাইবার ক্রাইম নিয়ন্ত্রণে দেশে আইন রয়েছে। সেই আইনে অপরাধীদের গ্রেপ্তারের পর বিচার হচ্ছে।’
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ।
প্রতিযোগিতায় ঢাকার শহীদ পুলিশ স্মৃতি কলেজকে পরাজিত করে নরসিংদীর আবদুল কাদির মোল্লা সিটি কলেজের বিতার্কিকরা চ্যাম্পিয়ন হয়।
বিচারক ছিলেন ড. এস এম মোর্শেদ, সাংবাদিক লিটন হায়দার, আব্দুল্লাহ তুহিন, কাওসার সোহেলী, প্রাক্তন বিতার্কিক মেহেদী হাসান তামিম।
এসময় উপস্থিত ছিলেন র‌্যাব-২ এর পরিচালক লে. কর্নেল খন্দকার সাইফুল আলম এবং র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।
প্রতিযোগিতা শেষে অংশগ্রহণকারী দলের মাঝে ট্রফি ও সনদপত্র প্রদান করা হয়।
সূত্র : ঢাকাটাইমস