আর্থিক সহযোগিতা ও খাদ্য সহায়তার দাবি

সরকার কর্তৃক প্রণোদনা হিসেবে মাসিক ন্যুনতম ১০ হাজার টাকা সরাসরি শ্রমিকদের প্রদান ও রেশনিং ব্যবস্থা চালুর দাবিসহ ছয়দফা দাবিতে স্মারকলিপি দিয়েছে সুনামগঞ্জ হোটেল রেস্টুরেন্ট মিষ্টি বেকারী শ্রমিক ইউনিয়ন।
মঙ্গলবার বেলা ১১টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এই স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।
সুনামগঞ্জ হোটেল রেষ্টুরেন্ট মিষ্টি বেকারী শ্রমিক ইউনিয়নের দাবিতে উল্লেখ করা হয়-লকডাউন, সাধারণ ছুটি বা যে কোন কারণে হোটেল প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও শ্রমিকদের পূর্ণাঙ্গ মজুরিসহ প্রাপ্ত সকল সুযোগ-সুবিধা প্রদান অব্যাহত রাখতে হবে।
মহামারী দুর্যোগের এই সময় হোটেল সেক্টরে কোন লে-অফ, অব্যহতি বা ছাঁটাই করা যাবে না। এ বিষয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় থেকে সুনির্দিষ্ট পরিপত্র জারি করতে হবে ।
যেসব শ্রমিক ইতিমধ্যে করোনা আক্রান্ত হয়েছে তাদের আইসোলেশন ও যথাযথ চিকিৎসার সমুদয় দায়িত্ব সরকার ও মালিককে বহন করতে হবে।
সকল হোটেল শ্রমিকদের জন্য পর্যাপ্ত রেশনিং ব্যবস্থা চালু করতে হবে।
কর্মরত শ্রমিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করা সহ ঝুঁকি ভাতা এবং করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেলে এক জীবন আয়ের সমপরিমাণ ক্ষতিপূরণ প্রদান করতে হবে।
সরকার কর্তৃক প্রণোদনা হিসেবে মাসিক ন্যুনতম ১০ হাজার টাকা সরাসরি শ্রমিকদের প্রদান করতে হবে। প্রেসবিজ্ঞপ্তি