ইউপি ভোট স্থগিত, বর্তমান চেয়ারম্যানরাই দায়িত্বে

সু.খবর ডেস্ক
করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। পরবর্তী নির্বাচন না হওয়া পর্যন্ত এসব ইউনিয়নে দায়িত্ব পালন করবেন বর্তমান নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা। মঙ্গলবার এ সংক্রান্ত এক পরিপত্র জারি করেছে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়। মঙ্গলবার (২৯ জুন) বিকেলে মন্ত্রণালয়ের পক্ষে উপসিচব আবু জাফর রিপনের স্বাক্ষরিত এক পরিপত্র জারি করা হয়।
পরিপত্রে বলা হয়, সারা বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশেও করোনা ভাইরাস সংক্রমনের উর্দ্ধগতির কারণে জনসমাগম এড়ানোর লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশন কতৃক নির্বাচন অনুষ্ঠান স্থগিত করা হয়েছে। অতএব মেয়াদ উত্তীর্ণ এবং আশু মেয়াদউত্তীর্ন হবে এমন ইউনিয়ন পরিষদসমুহের নির্বাচন অনুষ্ঠান না হওয়া পর্যন্ত স্থানীয় সরকার (ইউপি) আইন ২০০৯ এর ১০১ ধারা মোতাবেক প্রশাসনিক অসুবিধা দুরীকরণার্থে বিদ্যমান ইউনিয়ন পরিষদ সমূহকে দায়িত্ব পালনের জন্য নির্দেশনা প্রদান করা হলো।
এর আগে গতকাল আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন স্থগিতের পরিকল্পনা হয়েছে বলে জানিয়ে ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। তিনি বলেন, করোনার কারণে হয়তো ভোটগ্রহণ অসম্ভব হয়ে পড়েছে। সে জন্য আমরা এ রকম পরিকল্পনা নিতে বাধ্য হচ্ছি। তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে তো নির্বাচন করা যাবে না। তাই চিন্তা-ভাবনা করে বর্তমান চেয়ারম্যান যারা আছেন তাদেরকে চালিয়ে যেতে নির্দশনা দেওয়া হয়েছে।
এদিকে আগামী জুলাই মাসের ২৯ অথবা ৩১ জুলাই গত ২১ জুন স্থগিত হওয়া ১৬৭ টি ইউপিসহ আরো ৫ শতের মত ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) ভোটগ্রহণের পরিকল্পনা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ইসি সচিবালয় থেকে নির্বাচন উপযোগী ইউপির তালিকা প্রস্তুত করে কমিশন সভায় প্রস্তাবনা পাঠানো হচ্ছে। আগামী সপ্তাহে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবার কথা ছিল ইসির। এর আগে প্রথম ধাপে ২১ জুন ২০৪টি ইউনিয়ন পরিষদে ভোট নেয় ইসি।