ইজারাদারের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার, তাহিরপুর
মাটিয়ান হাওরের বেরী বাঁধ কেটে দেয়ার প্রতিবাদে তাহিরপুর পূর্ব বাজারে ইজারাদারদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছে মাটিয়ান হাওর পারের কৃষকগণ।
বুধবার দুপুরে তাহিরপুর বাজারে মাটিয়ান হাওরপারের বিভিন্ন গ্রামের কৃষকগণের অংশগ্রহণে ঘন্টাব্যপী মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
মানববন্ধন শেষে বিক্ষোভ মিছিল সহকারে তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে জেলা প্রশাসক বরাবর ইজারাদারদের বিচার চেয়ে স্মারকলিপি প্রদান করেন হাওরপারের কৃষকগণ। অভিযোগ পেয়ে ইজারাদার কৃর্তক পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক নির্মিত মাটিয়ান হাওরের বোয়ালমারা বাঁধটি সরজমিন পরিদর্শন করেন তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারমান করুণা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার পদ্মাসন সিংহ।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মাটিয়ান হাওরের ৫০ বছরের স্থায়ী বোয়ালমারা বেরী বাঁধটির পূর্ব দিকে হারুনের কুড়ি নামে একটি জলমহাল রয়েছে। বাঁধের পশ্চিম দিকে রয়েছে মাদার ফিশারিজ টাঙ্গুয়া হাওর। বর্ষায় টাঙ্গুয়া হাওরের মাছ যাতে সহজে মাটিয়ান হাওরের হারুনের কুড়িতে প্রবেশ করতে পারে সে লক্ষে রতনশ্রী গ্রামের ইজারাদার
ইকবাল হোসেন ও সুনামগঞ্জ শহরস্থ দীপক ঘোষ সরকারি বেরী বাঁধটি রাতের অন্ধকারে কেটে দেয়। এর পূর্বে জলমহালের ইজারাদার তাদের বিলের পাহাড়াদার রতশ্রী গ্রামের সুহেল মিয়াকে বাঁধ কেটে দেয়ার জন্য ৫০হাজার টাকা প্রস্তাব করলে সে তা প্রত্যাখান করে স্থানীয় হাওরপারের কৃষকদের জানায়। মানববন্ধন চলাকালেও সোহেল মিয়া সবাইকে বিষয়টি অবহিতকরে বলে আমি তাদের প্রস্তাব না মানায় তারা আমাকে চাকুরীচ্যুত করে। সম্প্রতি এ রকম ঘটনাটি শুনার পর সরজমিন কৃষকরা হাওরে যান এবং বাঁধ কাটার অস্তিত্ব দেখতে পান। এরই ধারবাহিকতায় বুধবার মাটিয়ান হাওর পাড়ের কৃষকদের উদ্যোগে তাহিরপুর পূর্ববাজারে মানবন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
মানববন্ধন চলাকালে বক্তারা দফা দাবি পেশ করে বক্তব্য রাখেন তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ সাবেক সভাপতি আব্দুছ ছোবহান আখঞ্জি, মাটিয়ান হাওর পারের তাহিরপুর সদর ইউনিয়ন পরিষদ সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল তালুকদার, বড়দল দক্ষিন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সহ সভাপতি আবুল খয়ের, পরিবেশ ও হাওর উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি কাশমির রেজা, উপজেলা আওামলীগ সহ দপ্তর সম্পাদক শাহীন রেজা, উপজেলা কৃষকলীগ সভাপতি জিল্লুর রহমান, সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলগ সভাপতি শাহিনুর রহমান তালুকদার, বড়দল গ্রামের কৃষক মোছায়েল আহমদ, সুজন তাহিরপুর উপজেলা সাধারণ সম্পাদক হুসাইন শরীফ বিপ্লব প্রমুখ।
মাটিয়ান হাওরের ইজারাদার দীপক ঘোষ বললেন, বাঁধ তারা কাটেননি পাহাড়ীঢলের পানির তোড়ে ভেঙেছে।
তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, মাটিয়ান হাওরের বোয়ালমারা বাঁধ কাটার বিষয়ে ইজারাদারের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। লিখিত অভিযোগ পেয়ে আমি সরজমিন পরিদর্শন করেছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।