উরুগুয়ের সঙ্গে গোল শূন্য ড্র করল দক্ষিণ কোরিয়া

সু.খবর ডেস্ক
কাতার বিশ্বকাপে শক্তিশালী উরুগুয়ের বিপক্ষে গোল শূন্য ড্র করেছে এশিয় ফুটবলের আরেক পাওয়ার হাউজ দক্ষিণ কোরিয়া। আজ দোহার এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে এইচ গ্রুপের ম্যাচে দুই দলের মধ্যে হাড্ডা হাড্ডি লড়াই হলেও গোলের দেখা পায়নি কোন দল। ম্যাচের গুরুত্ব বিবেচনায় ইনজুরি সত্বেও মাঠে নামেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্লে মেকার সন জুন-হো। চলতি মাসের শুরুতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে মার্শেই’র বিপক্ষে ম্যাচে মুখোমুখি সংঘর্ষে সনের চোখের সকেটে চিড় ধরে। যে কারণে তার মুখে অস্ত্রোপচার করানো হয়। আজ প্রতিরক্ষা মুখোশ পড়ে মাঠে নামেন টটেনহ্যাম হট স্পার্সের ওই তারকা।
ম্যাচের ১৩ মিনিটে প্রথম আক্রমনে যায় উরুগুয়ে। রডরিগো বেনটানকার এর ক্রসের বলে মাটিয়াস ভেসিনো মাথা ছোঁয়ালেও সেটি চলে যায় মাঠের বাইরে। এর কিছুক্ষণ পর ২১ মিনিটে মাথিয়াস অলিভেরা প্রতিপক্ষের বক্সে ঢুকে যাবার পর কোরিয় ডিফেন্ডার কিম মিন-জায়ের সঙ্গে ধাক্কা লেগে পড়ে যান। তবে এতে পেনাল্টি না দেয়ায় প্রতিক্রিয়া জানাতে দেখা যায় উরুগুয়ের কোচ দিয়াগো আলনসোকে।
২৬ মিনিটে কোরিয় অধিনায়ক সন হেয়াং-মিনের ডান পায়ের শট লক্ষ্যভ্রস্ট হয়। প্রতি আক্রমন থেকে পরের মিনিটে ফেডেরিকো ভালভার্দে একাই বল নিয়ে কোরিয়ান ডি বক্সে গিয়ে আগুয়ান সতীর্থ ডারউইন নুনেজকে ক্রস করলেও তিনি নিয়ন্ত্রনে নেবার আগে কোরিয়ার গোল রক্ষক কিম সেয়াং-গাইয়ু ঝাপিয়ে পড়ে বলটি ফিস্ট করেন।
৩৩ মিনিটে না সাং-হো দারুন একটি বল বানিয়ে দেন সতীর্থ স্ট্রাইকার হুয়াং উই-জোকে। এই সময় উরুগুয়ের গোল রক্ষক সার্জিও রোশেকে একা পেয়েও গোল করতে ব্যর্থ হন তিনি। ৪২তম মিনিটে কর্নারের ক্রসে উড়ে আসা বলে উরুগুয়ের ডিফেন্ডার দিয়েগো গোডিন দারুন হেড করলে সেটি সাইড বারে লেগে ফিরে এলে গোলশুন্য অবস্থায় শেষ হয় ম্যাচের প্রথমার্ধ।
বিরতির পর ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার চেষ্টা করে কোরিয়া। এ সময় বেশ কয়েকটি আক্রমনও রচনা করে সন হেয়াং-মিনের দল। ম্যাচের ৪৮, ৫২, ও ৫৮ মিনিটে পর পর তিনটি আক্রমন করে কোরিয়া। তবে সবচেয়ে পরিকল্পিত আক্রমণ ছিল ৫২ মিনিটে। এ সময় পেনাল্টি বক্সের ভেতর থেকে সনের অসাধারণ শটের একটি বল ফিস্ট করেন উরুগুয়ের গোল রক্ষক সার্জিও রোশে।
ম্যাচের ৬২তম মিনিটে প্রতি আক্রমণে যায় উরুগুয়ে। এ সময় নুনেজ একাই মধ্যমাঠ থেকে বল নিয়ে ক্ষিপ্র গতিতে ঢুকে পড়েন কোরিয়ার ডি বক্সে। একেবারেই পোস্টের পাশে গিয়ে সরাসরি গোল না করে তিনি বলটি ব্যাক পাস করার চেস্টা করেন আড়াআড়ি ভাবে পোস্টে ঢুকে পড়া লুইস সুয়ারেজকে । কিন্তু মাঝপথে ঝাপিয়ে পড়ে বলটি নিয়ন্ত্রনে নিয়ে নেন কোরিয়ার গোল রক্ষক সেয়াং-গাইয়ু।
৭০ মিনিটে নিজেদের প্রান্ত থেকে সনর দীর্ঘ শটের বল পাঠিয়ে দেন উরুগুয়ের ডি বক্সের কাছে । বলের সঙ্গে সেখানে দ্রুত চলে আসেন সতির্থ হুয়াং উই-জো। কিন্তু পোস্ট ছেড়ে বেরিয়ে এসে বলটি ফিস্ট করেন উরুগুয়ের গোল রক্ষক। ৭৪ মিনিটে কোরিয়ার আরেকটি আক্রমণ থমকে যায় উরুগুয়ের সিমান্তে এসে। পরের মুহূর্তেই ডি বক্সের বাইরে থেকে জোড়ালো শটে গোল রক্ষক রোশের পরীক্ষা নেয়ার চেস্টা করেন বদলি হিসেবে আসা চো গুয়ে-সুং। কিন্তু বলটিও লক্ষ্যভ্রস্ট হয়।
এরপর তবে শেষ দিকে এডিনসন কাভানির কাছ থেকে বল পেয়ে ডি বক্সের বাইরে থেকে নেয়া নুনেজের শট লক্ষ্যভেদ করতে পারেনি। অন্তি মুহূর্তে ৮৯ মিনিটে ফেডেরিকো ভালভার্দের দূরপাল্লার জোড়ালো শটের বল বারে
না লাগলে ম্যাচের ফলাফর অন্য রকম হতে পারতো। শেষ পর্যন্ত গোলশূন্য ড্রয়ে শেষ হয় এইচ গ্রুপের প্রথম ম্যাচটি।
সূত্র : বাসস