এই লজ্জা আমরা কোথায় রাখব- ডা. জাফরুল্লাহ্ চৌধুরী

স্টাফ রিপোর্টার
বাংলাদেশে অনেক বড় বড় ঘটনা ঘটেছে কিন্তু বিচার বিভাগ এখন পর্যন্ত কোন ঘটনার রায় সুষ্ঠুভাবে দিতে পারেনি, ঐ থেকে বোঝা যায়, বাংলাদেশের বিচার বিভাগের কোমর ভাঙা। তারা উপর মহলের ইশারায় বিচারের রায় দেন। তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে সরকার দলের লোক শাল্লার নোয়াগাঁওয়ে হামলার ঘটনায় যুক্ত থাকে, সেটা সত্যি খুব লজ্জাজনক। এই লজ্জা আমরা কোথায় রাখব। সরকারের পুলিশ প্রশাসন এখানকার মানুষদের রক্ষা করতে পারেনি। অবিলম্বে এখানকার দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের সবাইকে প্রত্যাহার করতে হবে।
তিনি বলেন, ঐ দিনগুলো দেখার জন্য কি আমরা যুদ্ধ করেছিলাম, দেশ স্বাধীন করেছিলাম, স্বাধীন দেশে আমরা স্বাধীনভাবে বসবাস করতে পারি না। আজকে এখান থেকে পরিস্কার জানিয়ে দিতে চাই, আগামী সাত দিনের ভিতর ঐ মামলার তদন্ত শেষ করতে হবে এবং প্রধানমন্ত্রীকে গ্রামের মানুষের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে।
মঙ্গলবার দুপুরে নোয়াগাঁওয়ের ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর পরিদর্শন শেষে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ও ভাসানী অনুসারী পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. জাফরুল্লাহ্ চৌধুরী এসব কথা বলেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম বাবুল, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকী, ভাসানী অনুসারী পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য নঈম জাহাঙ্গীর, সিলেটের আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এমদাদ উল্লাহ শহীদুল ইসলাম শাহীন প্রমুখ।