- সুনামগঞ্জের খবর » আঁধারচেরা আলোর ঝলক - https://sunamganjerkhobor.com -

এতিম হলো ৪ শিশু

বিশ্বজিত রায়, জামালগঞ্জ
জামালগঞ্জে দুর্বুত্তের ছুরিকাঘাতে দম্পত্তি খুনের ঘটনায় ৪ শিশু এতিম হয়ে গেছে। এই শিশুরা হচ্ছে লিমা আক্তার (১৩), নাঈম ইসলাম (১০), অলিমা (৭) ও রাকিবুল হাসান (৫) নামের ৪ শিশু সন্তান। এদের সুন্দর ভবিষ্যৎ নিয়ে এখন চরম শঙ্কিত দাদী গুলেমান বিবি।
শোকার্ত বাড়িটিতে গিয়ে অসংখ্য মানুষের ভীড়ে ৫ বছরের শিশু রাকিবুল হাসানের খুঁজ মিলছিল না। অবশেষে কেউ একজন খুঁজে নিয়ে আসে তাকে। মা-বাবা হারানোর শোক স্পর্শ করতে পারেনি সদ্য এতিম হওয়া এই শিশুটিকে। পরম মমতায় বেড়ে ওঠা শিশু রাকিব হয়তো ভাবছে তার মা-বাবা কোথাও বেড়াতে গেছেন। খেলার ছলে অন্য শিশুদের সাথে দুষ্টুমীও করছিল সে। কিছুদিন পর যখন শিশু রাকিব মা-বাবার খুঁজ করবে তখন কে সান্তনা দেবে তাকে। মা-বাবার করুণ পরিণতি নিয়ে আরেক কন্যা অলিমাও অনেকটা গর্জহীন। প্রিয়জন হারানোর ব্যাথা তেমনভাবে প্রভাব বিস্তার করতে পারেনি তার ওপর। তবে মা-বাবাকে হারিয়ে অজোরে কাঁদছে বড় মেয়ে লিমা আক্তার ও আরেক শিশুপুত্র নাঈম ইসলাম। দুর্বৃত্ত রাসেলের অমানবিক কর্মকাণ্ডে এতিম হয়ে পড়া আলমগীর-মুর্শেদা দম্পতির এই শিশু সন্তানদের পাশে কে দাঁড়াবে এ নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।
ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, দরজার সামনে বসে আহাজারী করছেন নিহত আলমগীরের মা গুলেমান বিবি। তার সাথে কাঁদছে এতিম কন্যা লিমা আক্তার। পাশে নির্বাক ভঙ্গিমায় দাঁড়িয়ে আছে ভাই নাঈম। তার চোখেমুখেও আপনজন হারানোর কষ্ট ফোটে উঠেছে। খানিক দূরেই মাটিতে নীরবে বসে আছে শিশু অলিমা। পুরো বাড়িতেই যেন শোকার্ত পরিবেশ বিরাজ করছিল। ঘটনাস্থলে ভীড় করা মানুষের মনেও প্রশ্ন ছিল এখন কে দেখবে এই এতিম বাচ্চাদের।
দাদী গুলেমান বিবি বিলাপ করতে করতে বলছিলেন, এখন আমি কী করমু। আমার পুত আর বৌরে খুনী রাসেল চাক্কু দিয়া খুন কইরা ফেলাইছে। আমার নাতি-নাতনীদের এতিম কইরা দিছে। ও আল্লাহ তুমি হের বিচার কইর।

  • [১]