এসডিজি বাস্তবায়নে জেলা পর্যায় বাজেট থাকা প্রয়োজন

সু.খবর ডেস্ক
জাতিসংঘে টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট (এসডিজি) বাস্তবায়নে জেলা পর্যায় বাজেট থাকা প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। শনিবার (২৫ জুলাই) পল্লী কর্মসহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট সলিউশনের সদ্য প্রকাশিত ‘টেকসই উন্নয়ন প্রতিবেদন-২০২০’ নিয়ে এক ওয়েবিনার আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

পিকেএসএফের চেয়ারম্যান কাজী খলীকুজ্জমানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজিবিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক জুয়েনা আজিজ ও পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সদস্য (সিনিয়র সচিব) ড. শামসুল আলম।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, সরকার এসডিজি বাস্তবায়নে ব্যাপক উদ্যোগ নিয়েছে। সরকারের নানা সমালোচনা আমার গায়েও লাগে। যদিও কোভিড আমাদের পেছনে নিয়ে গেছে। কিন্তু তারপরও আমরা এসডিজি বাস্তবায়নে এগিয়ে যাবো। এসডিজি বাস্তবায়ন আমাদের রাজনৈতিক অঙ্গীকার। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। সরকারি-বেসরকারি, সুশীল সমাজ এবং দেশের সব শ্রেণিকে সঙ্গে নিয়েই এসডিজি বাস্তবায়ন সম্ভব।

জুয়েনা আজিজ বলেন, সূচকে আমরা এগিয়েছি। অবস্থান ভালো হয়েছে। অসমতা হ্রাসের ক্ষেত্রে আমাদের ডাটা নেই। এই সূচক পরিমাপের জন্য আন্তর্জাতিকভাবে সময় লেগেছে। এসডিজির সব গোল নিয়েই কাজ হচ্ছে। ১৫৯টি লক্ষ্য সবগুলো মন্ত্রণালয়ের মধ্যে ভাগ করে দেওয়া হয়েছে। এসডিজির লক্ষ্যগুলো সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনর সঙ্গে যুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া বর্তমানে অষ্টম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায়ও এটি অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে।

ড. শামসুল আলম বলেন, এসডিজি বাস্তবায়নে সরকার যথেষ্ট আন্তরিক। এসডিজি শুরুর পর থেকে সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা তৈরি করা হয়েছে সেই আলোকেই। এখন অষ্টম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায়ও সেটিই করা হচ্ছে। তাছাড়া বাজেট বাস্তবায়নের মধ্য দিয়েই এসডিজি বাস্তবায়নই হচ্ছে। করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় নানা উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আশা করছি, আমরা পরিস্থতি মোকাবিলা করে এগিয়ে যাবো।
সূত্র : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম