- সুনামগঞ্জের খবর » আঁধারচেরা আলোর ঝলক - https://sunamganjerkhobor.com -

এ কেমন পাষণ্ড মা!

কুড়িয়ে পাওয়া নবজাতক কন্যা শিশুটি কোলে নিয়ে হাসপাতালে যান দিরাই থানার ওসি কে এম নজরুল ইসলাম

দিরাই প্রতিনিধি
দিরাইয়ে সড়কের পাশে বনের ঝোপ থেকে এক নবজাতক কন্যা সন্তানকে উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার রাত সাড়ে ১১ টায় পৌরসভার একটি সড়কের পাশ থেকে এই নবজাতককে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে দিরাই থানা পুলিশ। রোববার সকালে ওই শিশুকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।
জানা যায়, শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৫ টায় কলি বেগম (৩০), স্বামী তারিক মিয়া, গ্রাম জগদল উল্লেখ করে একজন অন্ত:স্বত্বা মহিলা দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন। রাত ৯ টায় হাসপাতালের সেবিকা শামীমা আক্তারের সহযোগিতায় ওই মহিলা কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। সন্তান প্রসবের পর ডাক্তার ও নার্স চলে যাওয়ার কিছুক্ষণ পরে কাউকে না জানিয়েই নবজাতকসহ গর্ভধারিনী পাষ- মা ও তার সঙ্গে থাকা অন্যরা পালিয়ে যায়। রাতে হাসপাতাল থেকে প্রায় ৩ কিলোমিটার দূরে মজলিশপুর গ্রামের বনের ঝোপ থেকে এই নবাজতককে উদ্ধার করে পুলিশ।
পুলিশ জানায়, নবজাতকের নাভিতে ক্লিপ লাগানো রয়েছে, ধারণা করা হচ্ছে হাসপাতালেই প্রসব হয়েছে শিশুটি।
দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও ডা. সুমন রায় চৌধুরী জানান, সকালে নবজাতকটিকে দেখে চিনতে পারেন সেবিকা শামীমা বেগম। পরে দেখা যায় রাতে প্রসব হওয়া সন্তান ও তার পরিবারের লোকজন হাসপাতালে নেই। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাহবুবুর রহমান জানান, ওই সময়ের সিসি টিভির ফুটেজ পাওয়া যাচ্ছে না। শিশুটির গলায় আঘাতের চিহৃ রয়েছে। গলা ফুলে গেছে, উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেটে পাঠানো হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, গলায় সুতা দিয়ে পেছিয়ে শিশুটিকে হত্যা করার চেষ্টা করা হয়েছিলো।
দিরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কেএম নজরুল জানান, সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলর পঙ্কজ পুরকায়স্থ খবর দেওয়ায় নবজাতক কন্যা সন্তানটি উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। আমরা এই বিষয়ে খবর নিচ্ছি, প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, হাসপাতালের রেজিস্টারে উল্লেখ করা নাম ঠিকানা ভুয়া।

  • [১]