করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি, কমেছে প্রশাসনিক তৎপরতা

আলী আহমদ, জগন্নাথপুর
জগন্নাথপুর উপজেলায় করোনা সংক্রমণের শুরুতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে জনসাধারণকে সচেতন করতে ব্যাপক প্রশাসনিক তৎপরতা দেখা গেলেও বর্তমানে প্রশাসনিক তৎপরতা কমে গেছে। ফলে জনসাধারণের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্য বিধি না মানার প্রবণতা দেখা দিয়েছে। সাম্প্রতিককালে লকডাউন সীমিত হলে জগন্নাথপুর উপজেলায় নারায়নগঞ্জ, ঢাকা, গাজীপুরসহ বিভিন্ন জেলা থেকে আসা লোকজন উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে ও হাট বাজারগুলোতে অবাধে ঘোরাফেরা করছেন।
জগন্নাথপুর উপজেলা নাগরিক ফোরাম যুগ্ম আহ্বায়ক রুমানুল হক বলেন, করোনা সংক্রমণের শুরুতে এপ্রিল মাসে উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ও পুলিশ প্রশাসনের যৌথ প্রচেষ্টায় সামাজিক সচেতনতা সৃষ্টিতে তৎপরতা ছিল উল্লেখযোগ্য। কিন্তু ঈদের পর থেকে সংক্রমণ বাড়তে থাকলেও প্রশাসনের তৎপরতা নেই বললেই চলে।
জগন্নাথপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানান, করোনার কঠিন পরিস্থিতির মধ্যেও জনসাধারণকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে আমরা দিনরাত কাজ করছি। কিন্তু লোকজনের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি না মানার প্রবণতা বেশী।
জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মধু সুদন ধর বলেন, ঈদের পর পরই এ উপজেলায় করোনা রোগী বেড়েছে। জগন্নাথপুরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ১৭ জন। এরমধ্যে ৭ জন সুস্থ হয়ে বাড়িতে রয়েছেন। অপর ১০ জন চিকিৎসাধীন আছেন।
জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহফুজুল আলম বলেন, সামাজিক দূরত্বনিশ্চিত করণে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে প্রশাসনের পক্ষ আমরা নিয়মিতভাবে কাজ করে যাচ্ছি। কিছুটা শীতিলতা থাকলেও আমাদের কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।