কুস্তি খেলায় হাজারো মানুষের ঢল

লিপসন আহমেদ
সুনামগঞ্জে দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হয়েছে গ্রামীণ ঐতিহ্যবাহী কুস্তি খেলা। খেলায় অংশগ্রহণ করে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার লক্ষণশ্রী ইউনিয়নের জলিলপুর, ফকিরনগর, পিরোজপুর, ফুলভরী গ্রামের দল। সোমবার ফকিরনগর গ্রামের মাঠে অনুষ্ঠিত খেলায় জয়ী হয় জলিলপুর।
জানা যায়, দাওয়াতি কুস্তি খেলার আয়োজনকে ঘিরে হাওরপাড়ের গ্রামে কয়েকদিনের আনন্দ উৎসব শুরু হয়। খেলা উপলক্ষে আয়োজক গ্রামের বাড়িতে বাড়িতে বিভিন্ন এলাকা থেকে স্বজনরা আসতে শুরু করেন। খেলার দিন আশপাশের গ্রাম থেকে মাঠে মানুষের ঢল নামে।
সরজমিনে দেখা যায়, হাজারো দর্শক প্রখর রোদের মধ্যে কেউ ছাতা টানিয়ে কেউবা রোদে পুড়ে সকাল থেকে কুস্তি খেলা দেখছেন। আয়োজক গ্রামের মানুষ একদিন ও এক রাতে দাওয়াতি গ্রামের মানুষ ও খেলোয়াড়দের গরু, খাসি, হাঁস, মুরগি জবাই করে খাওয়ান। পরের দিন সকাল থেকে মাঠে শুরু হয় কুস্তি খেলা। নিজেদের মধ্যে সৌহার্দ ও সম্প্রীতির বন্ধন অটুট রাখতে এবং কুস্তি খেলা নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে খেলার আয়োজন করেন আয়োজকরা।
খেলোয়াড় লিমন জানান, কুস্তি খেলা সুনামগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী একটি খেলা। এটি ময়মুরুব্বিরা খেলে এসেছেন। এই খেলা খেলে আমরা অনেক মজা পাই, আনন্দ পাই। শুধু তাই নয়, এই খেলার মাধ্যমে দুটি গ্রামের মধ্যে বন্ধুত্বের সৃষ্টি হয়।
খেলা দেখতে আসা সামির মিয়া বলেন, সকাল থেকে প্রখর রোদের মধ্যে মাঠে বসে কুস্তি খেলা দেখছি। এই খেলা দেখার জন্য আজকে সকল কাজ আমি বাদ দিয়ে দিসি। কুস্তি খেলা দেখার মজাই আলাদা।
জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, সুনামগঞ্জে কুস্তি খেলা খুবই জনপ্রিয়। বিভিন্ন উপজেলায় বিভিন্ন ইউনিয়নে এখন এই খেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, আগামী ৩০ তারিখে সুনামগঞ্জ জেলা স্টেডিয়ামে বড় আয়োজনে কুস্তি খেলা অনুষ্ঠিত হবে।