খাটের নিচে লুকানো ছিল ৮ কেজি গাঁজা, স্বামী-স্ত্রী আটক

ধর্মপাশা প্রতিনিধি
দীর্ঘ বছর ধরে গোপনে চলছিল আব্দুল আজিজের জমজমাট মাদক ব্যবসা। এ ব্যবসায় সহযোগী ছিলেন তাঁর স্ত্রী মনি আক্তার। স্থানীয়রা জানান, রাতারাতি বড়লোক হবার স্বপ্ন থেকেই তাদের এই অনৈতিক কার্যকলাপ শুরু। কিন্তু মঙ্গলবার দুপুরে তাদের স্বপ্নের সে গুড়ে বালি ঢেলে দেয় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, সুনামগঞ্জ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর ও ধর্মপাশা থানা পুলিশের যৌথ অভিযান। আটক করা হয় ওই দম্পতিকে আর তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ৮ কেজি গাঁজা। মাদক ব্যবসায়ী আব্দুল আজিজ ধর্মপাশা উপজেলার সেলবরষ ইউনিয়নের উত্তরবীর গ্রামের নূর ইসলামের ছেলে।
সুনামগঞ্জ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক মো. খোরশেদ আলম ওইদিন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পান যে, আজিজের বাড়িতে গাঁজার মজুদ রয়েছে। পরে তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মুনতাসির হাসানসহ ধর্মপাশা থানা পুলিশকে নিয়ে টাস্কফোর্স গঠন করে ওইদিন দুপুর ১২টার দিকে আজিজের বাড়িতে যৌথ অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় আজিজের বসতঘর তল্লাশি করে খাটের নিচ থেকে ৮ কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয় এবং আজিজ ও তার স্ত্রী মনিকে আটক করা।
ধর্মপাশা থানার ওসি মো. খালেদ চৌধুরী বলেন, ‘আটককৃতদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হয়েছে।’