ছাতকে এক নারীর রহস্যজনক মৃত্যু

ছাতক প্রতিনিধি
ছাতকে আলেখা বেগম নামের চল্লিশ উর্ধ্ব এক নারীর রহস্যজনক মৃত্যু নিয়ে এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়েছে। মৃত্যুর কারণ নিয়ে চলছে জল্পনা—কল্পনা। হাসপাতাল থেকে ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছে পুলিশ। দুই কন্যা সন্তানের জননী আলেখা বেগম উপজেলার চরমহল্লা ইউনিয়নের কামারখাল—নোয়াগাঁও গ্রামের আবুল কালামের স্ত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার বিকেলে কামারখাল—নোয়াগাও গ্রামের আলেখা বেগমের বাড়ি সংলগ্ন এলাকায়।
জানা যায়, একই গ্রামের আরব আলীর পুত্র ওমান প্রবাসী সুন্দর আলীর সাথে আলেখা বেগমের এক কন্যার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। প্রেমের সুবাদেই আলেখা বেগমের পরিবারের সাথে ছিলো সুন্দর আলী মধুর সম্পর্ক। প্রবাসে থাকাকালে আলেখা বেগমের সাথে সুন্দর আলীর অর্থ লেনদেন হয়েছেও বলে জানা গেছে। সম্প্রতি দেশে এসে পারিবারিকভাবে অন্য একটি মেয়ের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয় সুন্দর আলী। এ নিয়ে সুন্দর আলীর সাথে আলেখা বেগমের পরিবারের সম্পর্কে ফাটল ধরে। দুই পরিবারের মধ্যে মনোমালিন্যও চলে আসছিল এ নিয়ে। শুক্রবার বিকেলে বাড়ি সংলগ্ন এলাকায় সুন্দর আলীর সাথে আলেখা বেগমের বাকবিতন্ডা ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। আলেখা বেগমের পরিবারের দাবি আলেখা বেগমকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে প্রতিপক্ষরা বেধড়ক মারপিট করেছে। ফলে তার মৃত্যু ঘটেছে। পরে সেই মৃত দেহ কৌশলে কৈতক হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যায় প্রতিপক্ষরা। স্থানীয় লোকজনের ধারনা অর্থ লেনদেনের বিষয়ে বাকবিতন্ডার সময় হার্ড এটাকে আলেকা বেগমের মৃত্যু ঘটে। পরে কে বা কারা তাকে হাসপাতালে রেখে চলে যায়।
ছাতক থানার ওসি মাহবুবর রহমান জানান, লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।