ছাতকে এসপিপিএম উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ নির্বাচনের দাবিতে স্মারকলিপি

ছাতক প্রতিনিধি
ছাতকে অনির্বাচিত বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি (এসএমসি) দিয়ে চলছে ছাতকস্থ সিলেট পাল্প এন্ড পেপারমিল (এসপিপিএম) উচ্চ বিদ্যালয়ের কার্যক্রম। এতে শিক্ষার উপযুক্ত পরিবেশ ও শিক্ষার গুণগত মান ক্রমশঃ হ্রাস পাচ্ছে এমন অভিযোগ তুলে ধরে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের পক্ষ থেকে একটি স্মারকলিপি দেয়া হয়েছে। অনির্বাচিত কমিটি বাতিল করে নির্বাচনের মাধ্যমে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি গঠনের দাবিতে সোমবার সকালে কয়েকশ’ অভিভাবক দলবদ্ধ হয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে এ স্মারকলিপি প্রদান করেন।
স্মারকলিপিতে বলা হয়, ছাতকস্থ সিলেট পাল্প এন্ড পেপারমিল উচ্চ বিদ্যালয় প্রায় ৩ বছর ধরে অনির্বাচিত একটি কমিটি দিয়ে পরিচালিত হয়ে আসছে। ৬ মাসের মধ্যে একটি নির্বাচিত কমিটি গঠনের শর্তে ২০২১ সালের ১৫ নভেম্বর এসপিপিএম উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনার জন্য সিলেট মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের বিদ্যালয় শাখা কতৃর্ক একটি এডহক কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়। কিন্তু শর্ত অনুযায়ী ৬ মাসের মধ্যে কোন নির্বাচনের উদ্যোগ গ্রহণ না করে শুধু শিক্ষক প্রতিনিধি বদল করে চলতি বছরের ৫ জুন ওই এডক কমিটিই ২য় মেয়াদের জন্য অনুমোদন করে নিয়ে আসা হয়। একইভাবে ৬ মাসের মধ্যে নির্বাচনের মাধ্যমে এসএমসি গঠনের শর্ত বহাল রেখে ২য় বারের মতো ওই এডহক কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়। কিন্তু ২য মেয়াদেও নির্বাচনের কোন উদ্যোগ গ্রহণ না করে ছাতকস্থ সিলেট পাল্প এন্ড পেপারমিল উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনার জন্য ধারাবাহিকভাবে এডহক কমিটি অব্যাহত রাখার অপচেষ্টা করা হচ্ছে বলে স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়েছে। কোন কার্যক্রম ব্যতিরেকে ওই এডহক কমিটিই ৩য় বারের মতো অনুমোদন নেয়ার পায়তারা করা হচ্ছে বলেও উল্লেখ করা হয় স্মারকলিটিতে। দীর্ঘ প্রায় ৩ বছর ধরে অনির্বাচিত কমিটির দ্বারা এসপিপিএম উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালিত হওয়ায় বিদ্যালয়ের শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বিঘ্নিত ও শিক্ষার মান ক্রমশ: নিন্মমুখী হচ্ছে। এ নিয়ে অভিবাবক ও এলাকাবাসীর মধ্যে হতাশা, অসন্তোষ ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে এসপিপিএম উচ্চ বিদ্যালয়ের স্বার্থে দ্রুত নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান স্মারকলিপি প্রদানকারীরা।
স্মারকলিপি প্রদানকালে পৌর কাউন্সিলর ইরাজ মিয়া, সাবেক কাউন্সিলর ধন মিয়া, অভিভাবক এনামুল হক ইদন, রাসেল মিাহমুদ, রহমত আলী, সিরাজ মিয়া, আবুল হোসেন, আক্তার হোসেন, আলাউদ্দিন, নুর ইসলাম, শফিক আলী, আমিন উদ্দিন, কুতুব উদ্দিন, আফাজ উদ্দিন প্রমুখ।