ছাতকে জলমহালের মাছ লুট, ১৬০ জনের বিরুদ্ধে মামলা

ছাতক প্রতিনিধি
ছাতকের দোলারবাজার ইউনিয়নের নি¤œ-উপর গর্জনী জলমহাল হতে জোরপূর্বক মাছ লুটপাটের অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। শনিবার জলমহাল লিজ গ্রহীতা শাহজালাল মৎস্য সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাসুক আলী বাদী হয়ে ২৮ জনের নাম উল্লেখ করে দেড় শতাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ছাতক থানায় এ মামলা (নং-২১) দায়ের করেন।
অভিযোগ থেকে জানা যায়, ইউনিয়নের জাহিদপুর মৌজার নি¤œ-উপর গর্জনী জলমহালটি লিজ নেয় শাহজালাল মৎস্য সমবায় সমিতি। প্রায় ৩ মাস ধরে এলাকার একটি পক্ষ জলমহালটি জোরপূর্বক দখল ও মাছ লুটপাটের পায়তারা করে আসছিল। গত ৯ মার্চ প্রতিপক্ষরা জলমহালে এসে পাহারাদারকে ভয়-ভীতি প্রদর্শনসহ হুমকি-ধামকী দিয়ে যায়। এ ঘটনায় ১০ মার্চ মাসুক আলী ছাতক থানায় একটি জিডি এন্ট্রি (৫০১) করেন। এতে প্রতিপক্ষের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে গত ১৬ মার্চ সকালে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে এবং মাছ ধরার সকল সরঞ্জাম নিয়ে নি¤œ-উপর গর্জনী জলমহালে দলে-দলে ঝাঁপিয়ে পড়ে। এসময় লুপাটকারীরা পাহারাদারের ঘর ভাংচুর, জলমহালে থাকা বিভিন্ন ধরনের মাছ ধরার জাল লুট করে নেয়। এ ঘটনায় জলমহাল লিজ গ্রহীতা শাহজালাল মৎস্য সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাসুক আলী বাদী হয়ে সুজন মিয়া, মনির মিয়া, মফিজ আলী, আব্বাস আলী,রহিম উদ্দিন, ছমির উদ্দিন, সাহাব উদ্দিন, ছমসুল ইসলামসহ ২৮ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ১৬০ জনের বিরুদ্ধে ছাতক থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মাসুক আলী জানান, মাছ লুটপাটসহ প্রতিপক্ষরা সমিতির ৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন করেছে ।
ছাতক থানার অফিসার ইনচার্জ নাজিম উদ্দিন মামলার সত্যতা স্বীকার করেছেন।