ছাতকে দু’গ্রামবাসীর সংঘষর্, গুলিবিদ্ধসহ আহত ৫০

ছাতক প্রতিনিধি
ছাতকে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু’গ্রামবাসীর মধ্যে দফায়-দফায় সংঘর্ষে পুলিশসহ অন্তত অর্ধশতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছে। কলেজ ছাত্রলীগের দু’কর্মীর আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার রাতে এ সংঘর্ষের ঘঁনা ঘটে। প্রায় দু’ঘন্টা ব্যাপী দফায়-দফায় সংঘর্ষে জাউয়াবাজার এলাকা এক রণক্ষেত্রে পরিনত হয়। সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ ৬০ রাউন্ড রাবার বুলেট ২৫ রাউন্ড টিয়ারসেল ছুঁড়েছে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলা জাউয়াবাজার ইউনিয়নের কোনাপাড়া গ্রামের ইব্রাহিম মিয়ার পুত্র জাউয়াবাজার ডিগ্রী কলেজের ছাত্র জুনেদ আহমদের সাথে একই কলেজের ছাত্র ও পূর্বহাটি গ্রামের আতাউর রহমান আতার পুত্র মাহতাব মিয়ার আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধ চলছিলো। মঙ্গলবার বিকেলে জাউয়াবাজারে এ দু’জনের মধ্যে বাক-বিতন্ডার ঘটনা ঘটে। এ ঘঁনার জের ধরে সন্ধ্যার পর থেকে দু’কলেজ ছাত্রের পক্ষ উভয় গ্রামবাসী জাউয়াবাজার সড়কের উপর রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। সংঘর্ষে পুলিশ, পথচারীসহ অন্তত অর্ধশতাধিক লোকজন আহত হয়। সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ আহত লোকমান হোসেন, মাসুম মিয়া, হোসাইন আহমদ, জুনেদ মিয়া, কমর উদ্দিন, আকবর আলী, মোহাম্মদ আলী. নাজিম উদ্দিন, সুমন মিয়া, খোকন মিয়া, মুহিবুর রহমানসহ ১৫ জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত ৩৫ জনকে স্থানীয় কৈতক হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা হয় এ খবর পেয়ে সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ এহসান শাহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। ছাতক থানার অফিসার ইনচার্জ মাহবুর রহমান জানান, পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।