ছাতকে সিএনজি চালকের ছুরিকাঘাতে ২ যাত্রী আহত

ছাতক প্রতিনিধি
ছাতকে চালক ও যাত্রীবেশী দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে ২ সিএনজি যাত্রী গুরুতর আহত হয়েছে। আহতদের আশংকাজনক অবস্থায় ভর্তি করা হয়েছে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। গত সোমবার রাতে উপজেলার দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নের মনিরজ্ঞাতি গ্রামের সড়কে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জড়িত মনিরজ্ঞাতি গ্রামের আশিক মিয়ার পুত্র সুমন মিয়া (২২)কে ছুরিসহ জনতা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।
ছুরিকাঘাতে আহতরা হলো জাউয়াবাজার ইউনিয়নের সাউদেরগাঁও গ্রামের আব্দুল কাদিরের পুত্র নজরুল ইসলাম (২৫) ও একই গ্রামের গুলজার খানের পুত্র ইমন খান (২৪)।
জানা যায়, সোমবার রাতে জাউয়া বাজার থেকে সাউদেরগাঁও যাওয়ার জন্য একটি সিএনজিতে উঠেন নজরুল ইসলাম ও ইমন খান। এসময় অহেতুক সময় নষ্ট করার জন্য সিএনজি চালক মনিরজ্ঞাতি গ্রামের ফিরোজ মিয়ার পুত্র দিলোয়ার হোসেনের সাথে তাদের বাক-বিতন্ডা হয়। পরে চালক দিলোয়ার হোসেন তার সহযোগি সুমন মিয়াকে সাথে করে গাড়ি নিয়ে গন্তব্যের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। এক পর্যায়ে গাড়িটি সাউদেরগাঁও এলাকায় না থামিয়ে মনিরজ্ঞাতি গ্রামের রাস্তায় নির্জন এলাকায় থামিয়ে যাত্রী নজরুল ইসলাম ও ইমনকে মারপিটসহ ছুরিকাঘাত করে তাদের সাথে থাকা নগদ টাকা ও জিনিসপত্র ছিনিয়ে নিয়ে যায় চালক দিলোয়ার ও তার সহযোগি সুমন। ছুরিকাঘাতে আহত নজরুল ইসলাম ও ইমনের আর্তচিৎকারে এসময় আশপাশের লোকজন এসে ছুরিসহ সুমনকে আটক করে। এসময় চালক দিলোয়ার হোসেন সিএনজি নিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে কৈতক এবং পরে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। এ ঘটনায় আহত নজরুল ইসলামের চাচা আশিক মিয়া বাদী হয়ে সুমন ও দিলোয়ারকে আসামী করে ছাতক থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।