জগন্নাথপুরে মাদ্রাসা ছাত্রী হত্যা, ঘাতক চাচা গ্রেপ্তার

জগন্নাথপুর অফিস
জগন্নাথপুরে মাদ্রাসা ছাত্রীকে হত্যার অভিযোগে ঘাতক চাচাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে জগন্নাথপুর থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তির নাম বদরুল ইসলাম। তিনি উপজেলার সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়নের সৈয়দপুর গোলায়গাঁও গ্রামের মৃত. জিতু মিয়ার ছেলে।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, উপজেলার সৈয়দপুর গোয়ালগাঁও গ্রামের শয়ফুল ইসলামের মেয়ে সানজিদা বেগম (১৬) প্রতিদিনের মতো মঙ্গলবার রাতের খাওয়া শেষে নিজ শয়ন কক্ষে ঘুমাতে যায়। রাতের কোনো এক সময় মেয়েটির আপন চাচা রবিউল ইসলাম (৪০) সানজিদার ঘরে প্রবেশ করে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে পালিয়ে যায়। বুধবার ভোরে মেয়েটির নিথর দেহ নিজ ঘরের বিছানায় পড়ে দেখে পরিবারের লোকজন।
পরিবারের লোকজন জানান, শয়ফুল ইসলামের চার ভাইয়ের মধ্যে এক ভাই যুক্তরাজ্যে বসবাস করেন। ওই প্রবাসি নিঃসন্তান হওয়ায় মেয়েটিকে তিনি নিজের মেয়ের মতো মায়া করে সংসারের ভরন পোষণের টাকা মেয়েটির কাছে পাঠাতেন। এ নিয়ে ঘাতক ভাইয়ের সাথে কিছু বিরোধ চলছিল। কিছু দিন আগে এসব নিয়ে বিরোধের জের ধরে স্ত্রী সন্তান নিয়ে তিনি শ্বশুর বাড়ি চলে যান। মঙ্গলবার বাড়ি ফিরে এ ঘটনা ঘটায় মেয়েটির চাচা রবিউল ইসলাম। ঘটনার অভিযুক্ত চাচা রবিউল ইসলামকে গতকাল সিলেট থেকে জগন্নাথপুর থানা পুলিশ গ্র্প্তোর করে।
বিষয়টি নিশ্চিত করে জগন্নাথপুর থানার উপ-পরির্দশক (এসআই) রাজিব আহমদ জানান, হত্যাকা-ের ঘটনায় জগন্নাথপুর থানায় মামলার প্রস্তুুতি চলছে।