জগন্নাথপুরে মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের ওপর হামলা, আহত ৫

জগন্নাথপুর অফিস
জগন্নাথপুরে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে এক বীর মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের লোকজনের ওপর হামলা চালিয়ে নারীদের মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের রৌয়াইল গ্রামে গত বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনাটি ঘটে। হামলার শিকার সাত মাসের অন্ত:স্বত্তা নারীসহ ৫ জনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে।
জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে আসা আহত রোগীদের স্বজনরা জানান, গত বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে রৌয়াইল গ্রামের (মোকামপাড়া) মৃত বীর মুক্তিযোদ্ধা আছাব আলীর ছোট ছেলে ফজলু মিয়ার (২৬) সঙ্গে টমটম চালক মাহি মিয়ার কথা কাটাকাটা হয়। মাহি একই এলাকার বাসিন্দা চুনু মিয়ার ছেলে। এক পর্যায়ের টমটম চালক মোকামপাড়া নিয়ে আপত্তিকর কথা বললে চালক মাহি ও ফজলুর মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এরপর রাত সাড়ে ৯টার দিকে মাহির আত্মীয় স্বজনরা সংঘবদ্ধ হয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা আছাব আলীর বাড়িতে হামলা চালায়। তাদের হামলায় আহত হন মুক্তিযোদ্ধার ছেলে ফজলু মিয়ার অন্ত:স্বত্তা স্ত্রী রাহিমা বেগম (২৫), তাঁর জা সামছুল নাহার (২৮), রাসিয়া বেগম (২৮) , মুত্তিযোদ্ধার ছেলে সাবুল মিয়া (৩৫) ও ফজলু মিয়া (২৬)। তাদেরকে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
বীর মুক্তিযোদ্ধা আছাব আলীর ছেলে শাহিন মিয়া বলেন, প্রতিপক্ষের লোকজনের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আমাদের পূর্ব বিরোধ চলছিল। ঘটনার রাতে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে টমটম চালক মাহীর আত্মীয় স্বজনরা অস্ত্রেসস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সংঘবদ্ধ হয়ে আমাদের বাড়ীর লোকজনের ওপর রাতে হামলা করেছে।
এ বিষয়ে মাহির পরিবারের লোকজনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাদের কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
স্থানীয় ইউপি সদস্য নাজমুল হোসেন বলেন, খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতের চিকিৎসার জন্য স্বাস্থ্য কেন্দ্রে পাঠিয়েছি।
জগন্নাথপুর থানার ওসি (তদন্ত) মোছলেহ উদ্দিন বলেন, শুক্রবার এ বিষয়ে আমরা লিখিত একটি অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হচ্ছে।