জগন্নাথপুরে স্বেচ্ছায় ৫শতাধিক ব্যক্তির নিবন্ধন করল স্টুডেন্টস কেয়ার

জগন্নাথপুর অফিস
জগন্নাথপুরের স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়র পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে গঠিত স্টুডেন্ট’স কেয়ার জগন্নাথপুর এর উদ্যোগে জগন্নাথপুরের শহর থেকে গ্রামের বাড়ি বাড়ি গিয়ে কোভিড-১৯ ফ্রি ভ্যাকসিন নিবন্ধন ক্যাম্পেইন এর আওতায় ৫ শতাধিক মানুষের নিবন্ধন করা হয়েছে। স্বেচ্ছাসেবী এই সংগঠনের আয়োজনে গত ২৭ জুলাই থেকে নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয়, যা মঙ্গলবার শেষ হয়েছে।
জানা যায়, মহামারি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে করোনার টিকাদানে জনসাধারণ কে উৎসাহিত করতে গত ২৭ই জুলাই থেকে স্টুডেন্টস কেয়ার এর উদ্যোগে পৌরশহরে ফ্রি ভ্যাকসিন নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয়। লোকজনকে টিকাদানে উদ্বুদ্ধ করার পাশাপাশি স্বাস্থবিধি পালন সহ জনসচেতনামূলক প্রচারণায় অংশ নেয়। সংগঠনের দায়িত্বরত কর্মীরা মানুষের দ্বারে দ্বারে গিয়ে তাদের নিজের মোবাইল ফোনে ইন্টারনেটের মাধ্যমে নিবন্ধন করে দেয়। জগন্নাথপুরের পৌরশহরসহ উপজেলার বিভিন্ন গ্রামীণ অঞ্চলে এই কার্যক্রম চালানো হয়।
সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ক্যাম্পেইন আয়োজনের মূল লক্ষ্য ছিল, ভ্যাকসিনের প্রতি এক শ্রেণী মানুষের মিথ্যা ধারণা এবং কুসংস্কার রোধ করা। সেই সাথে ভ্যাকসিনের প্রতি সাধারণ মানুষদের আত্মবিশ্বাস, উদ্দীপনা ও গণজোয়ার সৃষ্টি করা।
গতকাল এই কার্যক্রম শেষ হয়েছে। তবে নিরবে সংগঠনের কর্মীরা নিবন্ধন করে দেবে বলে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আমিনুর রহমান হিমেল জানিয়েছেন।
হিমেল জানান, আমাদের জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মধু সুদন ধর স্যারের অনুপ্রেরণায় আমরা নিবন্ধন কার্যক্রম সম্পন্ন করেছি।
সংগঠনের সভাপতি জামাল হোসেন জানান, আমাদের সংগঠনের উদ্যাগে প্রচারণার মাধ্যমে সহস্রাধিক মানুষকে ভ্যাকসিন নিবন্ধনে প্রতি উৎসাহিত করার পাশাপাশি প্রায় পাঁচ শতাধিক ২৫ উর্ধ্ব ব্যক্তিদের ভ্যাকসিন নিবন্ধন করে দেওয়া হয়েছে। আমরা প্রথম এই কার্যক্রম শুরু করি। পরে অন্যান্য সংগঠন এই মহতি কাজে অংশ নেন।
জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মধু সুদন ধর বলেন, সরকারী উদ্যােগের পাশাপাশি স্টুডেন্টস কেয়ারসগ বিভিন্ন সংগঠন করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে মাঠে কাজ করছেন। এটা সত্যিই প্রশংসনীয় উদ্যোগ।