জাহান আলীর মাথার মুকুট নৌকা

ইয়াকুব শাহরিয়ার, শান্তিগঞ্জ
কাঠের তৈরি ছোট নৌকা মাথায় করে মূর্তির মতো দাঁড়িয়ে ছিলেন সম্মেলন মঞ্চের একদম সামনে। যতক্ষণ সম্মেলন চলছিলো ততক্ষণই দাঁড়িয়েছিলেন নৌকা প্রেমী ষাটোর্ধ্ব জাহান আলী, কোনো রকমের নড়াচড়া করেননি। একবারের জন্য মাথা থেকে নামাননি ভালোবাসার নৌকাখানি। বুধবার এমন দৃশ্যের দেখা মিলে শান্তিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন স্থলে।
এতে তিনি যেমন সৌন্দর্য বাড়িয়েছেন সম্মেলনের তেমনি নজর কেড়েছেন সম্মেলনে আসা নেতাকর্মীদের।
তাঁর সাথে কথা বলে জানা যায়, অতি দরিদ্র পরিবারের একজন মানুষ তিনি। বাড়ি শান্তিগঞ্জ উপজেলার পাথারিয়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডে শ্রীনাতপুর গ্রামে। তিনি মরহুম সুনু আলীর ছেলে। নৌকার প্রতি গভীর ভালোবাসা তাঁর। তিনি শেখ মুজিবুর রহমানের একজন ভক্ত তিনি। নৌকা ছাড়া জীবনে অন্য কোথাও ভোট দেননি তিনি। নৌকা তাকে শক্তি যোগায়, নৌকা শেখ মুজিব, শেখ হাসিনা ও পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানের প্রতীক তাই তিনি নৌকাকে মাথায় করে রেখেছেন।
পেশাগত দিক থেকে জাহান আলী একজন ভিক্ষুক। মানুষের কাছে হাত পেতেই চলে তার সংসার। আওয়ামী লীগের জন্য পাগল প্রাণ জাহান আলী বলেন, শেখ মুজিবুর রহমানের নৌকা। শেখ হাসিনা আর মান্নান সাহবেবের নৌকা তাই এটাকে মাথায় রেখেছি। আমি আওয়ামীলীগ করি। জীবনেও নৌকা ছাড়া ভোট দিছি না। যতদিন বাঁচমু আর কোনো জায়গা ভোট দিবো না।
পাথারিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম বলেন, পেশায় ভিক্ষুক জাহান আলী আওয়ামী লীগের জন্য নিবেদিত প্রাণ। বয়স্ক লোক তবু কোথাও আওয়ামী লীগের প্রোগ্রাম শুনলে পাগল হয়ে যান। মন্ত্রী মহোদয়ের মাধ্যমে ইতোমধ্যে তিনি একটি ঘর পেয়েছেন। আমার পরিষদ থেকেও সহযোগিতা করি। আমি আরো সহযোগিতা করবো। সরকারি সব ধরণের সুযোগ সুবিধা দেওয়ার চেষ্টা করবো।