জেলায় ৪৯৪ দুর্যোগ সহনীয় গৃহ নির্মিত হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টর
‘দুর্যোগ ঝুঁকি হ্রাসে সুশাসন নিশ্চিত করবে টেকসই উন্নয়ন’ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস পালিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় স্বাস্থ্য বিধি মেনে জুম মিটিংয়ে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ। জুম মিটিং এ সংযুক্ত ছিলেন জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ, সকল উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাবৃন্দ, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সারা দেশে ১৭,০০৫টি দুর্যোগ সহনীয় গৃহের উদ্ভোধন করেন। দুর্যোগ মোকাবিলায় বাংলাদেশ বিশ্বে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষা করে দেশের উন্নয়ন করাই সরকারের লক্ষ্য। গণভবন থেকে আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস উপলক্ষে ভার্চ্যুয়াল আয়োজনে তিনি বলেন, প্রকৃতি রক্ষা করেই দুর্যোগ মোকাবিলার পরিকল্পনা থাকতে হবে।
জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ অনুষ্ঠানে বলেন, ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরে ১৬৮ টি ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে সুনামগঞ্জ জেলায় ৩২৬ টি দুর্যোগ সহনীয় গৃহ নির্মিত হয়েছে এবং সুবিধা ভোগীদের মাঝে হস্তান্তর করা হয়েছে।
তিনি বলেন, ২০২০-২০২১ অর্থ বছরে মুজিববর্ষ উপলক্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার অভিপ্রায়ের অংশ হিসাবে জেলায় ৩,৯০৮টি দুর্যোগ সহনীয় গৃহ নির্মাণের জন্য বরাদ্দ পাওয়া যায়। দিরাই উপজেলায় ২০৩৩ টি গৃহ, দোয়ারাবাজার ৪৫০টি, তাহিরপুর ৩৪টি, সুনামগঞ্জ সদর ৫৭০টি, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ ৪১১টি, ছাতক ৫০টি জগন্নাথপুর ৩০টি, শাল্লা ১৬০টি, জামালগঞ্জ ৫০টি, ধর্মপাশা ১২০ গৃহ বাবদ বরাদ্দ পাওয়া প্রদান করা হয়েছে।
এছাড়াও জেলায় ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে ১৪৯০টি নিজ জমিতে গৃহ নির্মাণ ও ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরে ৪৪৭ টি ও ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে ৭২টি নিজ জমিতে গৃহ নির্মাণ (যার জমি আছে ঘর নাই) নির্মাণ করা হয়।