ঢলের পানিতে মঙ্গলকাটা বাজারের গলিতে গর্ত

আকরাম উদ্দিন
সদর উপজেলার জাহাঙ্গীরনগর ইউনিয়নের মঙ্গলকাটা বাজার গেল সপ্তাহে পাহাড়ী ঢলের পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় বাজারের বিভিন্ন গলির একাধিক অংশ ভেঙে গেছে। এই কারণে বাজারের ক্রেতা বিক্রেতার এবং যানবাহন চলাচলে দুর্ভোগ বেড়েছে। বাজারের গলির ভাঙন স্থান মেরামতের দাবি ব্যবসায়ীদের।
একাধিক ব্যবসায়ী জানান, বাজারের পাশে দলাই নদীরপাড় উপচে প্রবল বেগে পাহাড়ী ঢল চাউল বাজারের সামনে ত্রিমুখি গলির একটি অংশে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এতে বাজারের গলি দিয়ে চলাচলে মারাত্মক সমস্যা হচ্ছে। এই ভাঙনের কারণে যানবাহন চলাচল অসম্ভব হয়ে পড়েছে।
ব্যবসায়ী আইয়ুব খান, আব্দুশ শহীদ, অহিদ মিয়া ও রুহুল আমিন জানান, মঙ্গলবার সকাল ৭ টায় তাৎক্ষণিকভাবে পাহাড়ি ঢল আসে। মঙ্গলকাটা বাজার সংলগ্ন দলাই নদীর পাড় উপচে ঢলের পানি প্রবেশ করে। এতে বাজারের বিভিন্ন গলি পথের পাকা রাস্তা ভেঙে যায়।
ব্যবসায়ী আব্দুল হানিফ ও সেলিম মিয়া জানান, চাউল বাজারের সামনে ত্রিমুখি রাস্তা ঢলের পানির প্রবল বেগে ভেঙে গেছে। এই স্থান দিয়ে মানুষ চলাচলে ভোগান্তি বেড়েছে এবং যানবাহনও চলাচল করতে পারছে না।
বাজার পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক বুরহান আহমেদ চৌধুরী বলেন, এবারের পাহাড়ি ঢলে বাজারের অনেক ক্ষতি হয়েছে। প্রতিটি গলির অবস্থা খুবই খারাপ। বাজারের ৩ স্থান ঢলের পানিতে ভেঙেছে। ভাঙন অংশ দ্রুত মেরামত জরুরি।
জাহাঙ্গীরনগর ইউপি চেয়ারম্যান মো. মোকশেদ আলী বলেন, পাহাড়ী ঢলে মঙ্গলকাটা বাজারের বিভিন্ন গলির পাকা রাস্তা ভেঙেছে। জরুরি ভিত্তিতে ভাঙন রোধে বালুর বস্তা দেওয়ার ব্যবস্থা করেছি। এসব ভাঙন ভরাট ও পাকাকরণের জন্য চেষ্টা চলছে।