‘তিনি বেঁচে থাকবেন মানুষের হৃদয়ে’

স্টাফ রিপোর্টার
ফজলুল হক আসপিয়া ছিলেন ন¤্র, ভদ্র ও ধার্মিক মানুষ। তিনি জীবদ্দশায় কোনো মানুষকে শারীরিক বা মানসিকভাবে কষ্ট দেননি। সকল শ্রেণী পেশার মানুষকে ভালবাসতেন। তিন বারের নির্বাচিত এমপি থাকাকালীন সময়ে জেলার বিভিন্ন স্থানের উন্নয়ন করেছেন। রাস্তা-ঘাট, ব্রীজ-কার্লভাট এবং জন মানুষের কল্যাণে কাজ করেছেন। মানুষ ফজলুল হক আসপিয়াকে ভুলতে পারবে না। তিনি বেঁচে থাকবেন সকল শ্রেণী পেশার মানুষের হৃদয়ে।
বৃহস্পতিবার দুপুর ২টায় পৌর শহরের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ঈদগাহে সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য, সাবেক হুইপ ও বিএনপি’র চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা অ্যাড. ফজলুল হক আসপিয়া’র নামাজে জানাজার পূর্বে স্মৃতিচারণমূলক বক্তব্যে এসব কথা বলেন বক্তারা।
স্মৃতিচারণমূলক বক্তব্য রাখেন দিরাই-শাল্লা আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও কেন্দ্রীয় বিএনপি’র সদস্য নাসির উদ্দিন আহমদ চৌধুরী, সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা বিএনপি’র সভাপতি কলিম উদ্দিন আহমদ মিলন, সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখত, জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. সামছুল আবেদীন, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক দেওয়ান ইমদাদ রেজা চৌধুরী, ছাতক উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. হায়দার চৌধুরী লিটন, জেলা বিএনপি’র সহ সভাপতি অ্যাড. শেরেনুর আলী, জেলা জামাতের সেক্রেটারী মুমতাজুল হাসান আবেদ।
নামাজে জানাজায় উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপি’র সহ-সভাপতি নাদীর আহমদ, সহ-সভাপতি আ ত ম মিসবাহ, সহ সভাপতি রেজাউল হক, সহ সভাপতি আনসার উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম নুরুল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এটিএম হেলাল, তাহিরপুর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আনিসুল হক, জেলা বিএনপি’র মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক রাকাব উদ্দিন, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক সোহেল আহমদ, জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আতাউর রহমান, জামাত নেতা অ্যাড. সামছুদ্দীন, আইনজীবী ফোরাম সভাপতি অ্যাড. মাসুক আলম, সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. আব্দুল হক, জেলা যুবদল সভাপতি আবুল মনসুর শওকত, সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মামুনুর রশিদ কয়েছ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি সামছুজ্জামান, সাধারণ সম্পাদক মুনাজ্জির হোসেন, ছাত্রদল সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, সাধারণ সম্পাদক তারেক মিয়া, শান্তিগঞ্জ উপজেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক আমিনুর রশিদ, আ.লীগ নেতা রেজাউল করীম নিক্কু, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাড. মো. চাঁন মিয়া, বাংলাদেশ টেলিভিশনের সঙ্গীত পরিচালক মো. আপ্তাব মিয়া, মাও. আনোয়ার হোসেন, মাও. আব্দুল হক সহ জেলার বিভিন্ন উপজেলার দলীয় নেতাকর্মীরা এবং দলমত নির্বিশেষে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার হাজারো মানুষ নামাজে জানাজায় অংশ নেন। নামাজে জানাজা পড়ান জেলার বিশিষ্ট আলেম আল্লামা নুরুল ইসলাম খান।
ঐদিন বিকালে সিলেট হযরত শাহজালাল (র.) মাজারে তাঁর দাফন সম্পন্ন করা হয়।
উল্লেখ্য, গত বুধবার বেলা সাড়ে ১২ টায় রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ^াস ত্যাগ করেন বর্ষিয়ান এই রাজনীতিক। দীর্ঘদিন যাবৎ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে সেখানে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৮২ বছর। ফজলুল হক আসপিয়া ১৯৩৯ সালের ১১ নভেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। সুনামগঞ্জ সরকারি জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৫৫ সালে এসএসসি পাস করে সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজ ১৯৫৭ সালে এইচএসসি এবং ১৯৬২ সালে একই কলেজ থেকে ডিগ্রী পাস করেন। পরে ১৯৬৫ সালে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় থেকে এলএলবি ডিগ্রী অর্জন করে ১৯৬৬ সালে সুনামগঞ্জ জজ কোর্টে আইনপেশায় যুক্ত হন। তিনি সুনামগঞ্জ জেলা শিল্পকলা একাডেমী এবং জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।