- সুনামগঞ্জের খবর » আঁধারচেরা আলোর ঝলক - https://sunamganjerkhobor.com -

দোয়ারায় গৃহবধূর মৃত্যু নিয়ে রহস্য

দোয়ারাবাজার প্রতিনিধি
দোয়ারাবাজার উপজেলার পল্লিতে এক গৃহবধূর মৃত্যু নিয়ে গুঞ্জন চলছে। পরিবারের দাবি গৃহবধূ ফারজানা আক্তারকে হত্যা করে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার লক্ষিপুর ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামে। এ ব্যাপারে নিহত ফারজানার বড় ভাই আলী হায়দর বলেন, আমার বোনকে হত্যা করে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। আমি এর সঠিক বিচার চাই।
জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে মো. আলী হোসেনের তৃতীয় স্ত্রী ফারজানা বেগম (২৪) বসত ঘরের বারান্দায় উড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে বলে জানায় শশুর বাড়ির লোকজন। দোয়ারাবাজার থানা পুুুলিশ পরের দিন শুক্রবার দুপুরে খবর পেয়ে গৃহবধূ ফারজানার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে। এরপর ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। শনিবার ফারজানার বাবার বাড়ি মান্ননারগাঁও ইউনিয়নের সাউদেরগাঁও গ্রামে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন করা হয়। ফারজানার জানাজায় স্বামীসহ তাদের পরিবারের কেউ দাফন ও জানাজায় অংশগ্রহণ করেনি। এমনকি ফরজানার দুই শিশু সন্তানকেও তাদের মায়ের লাশ দেখতে দেয়নি আলী হোসেন।
স্থানীয়রা জানান, আলী হোসেন ইতিমধ্যে তিনটি বিয়ে করেছেন। প্রথমে বিয়ে করেন নিজ গ্রামে। আলী হোসেন প্রবাসে থাকাবস্থায় সেই স্ত্রী আফছার বেগম (৭ মাসের অন্ত:সত্তা) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। আফছার বেগমের বাবা তুরন আলী ১১ জনকে আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি এখনও চলমান রয়েছে। দ্বিতীয় বিয়ে করেন সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার কুরবাননগর ইউনিয়নের আলমপুর গ্রামে। সেই স্ত্রীর সাথে এক সপ্তাহ পরে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়।
দোয়ারাবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ নাজির আলম বলেন, শুক্রবার সকালে খবর পেয়ে আমরা লাশ উদ্ধার করি। সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ময়না তদন্ত শেষে নিহতের লাশ তার বাবার বাড়ি দাফন করা হয়েছে। তদন্ত রিপোর্ট আসলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  • [১]