ধর্মপাশা লেগুনা মালিক সমিতির উদ্যোগে জয়শ্রী সড়ক সংস্কার

ধর্মপাশা প্রতিনিধি
ধর্মপাশা উপজেলার কান্দাপাড়া থেকে জয়শ্রী সড়ক সংস্কার কাজ শুরু করেছে স্থানীয় লেগুনা মালিক সমিতি। সপ্তাহখানেক ধরে সমিতির লোকজন তাদের অর্থায়নে সড়কের সংস্কার কাজ করে যাচ্ছে। এতে করে কিছু দিনের মধ্যে ধর্মপাশা থেকে জয়শ্রী পর্যন্ত লেগুনা চলাচল শুরু হবে।
বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে রুরাল ট্রান্সপোর্ট ইমপ্রুভমেন্ট প্রজেক্ট (আরটিআইপি) এর আওতায় ২০০৭ সালে ২১ কোটি টাকা ব্যয়ে ১০ কিলোমিটার ও পরবর্তীতে ১৩ কোটি ২০ লাখ টাকা ব্যয়ে ৫.১ কিলোমিটার সড়কের কাজ করা হয়। সড়ক নির্মাণ কাজে অনিয়ম ও নি¤œমানের উপকরণ ব্যবহার করায় এ সড়কের কান্দাপাড়া থেকে জয়শ্রী পর্যন্ত ৭ কিলোমিটারের মধ্যে প্রায় ৪ কিলোমিটারই পুরোপুরি অকেজো হয়ে পড়েছে। ফলে জয়শ্রী ইউনিয়নবাসীসহ সুখাইড় রাজাপুর উত্তর, সুখাইড় রাজাপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের লক্ষাধিক জনগণসহ জামালগঞ্জ, তাহিরপুর ও সুনামগঞ্জগামী যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। কান্দাপাড়া থেকে জয়শ্রী বাজার পর্যন্ত সড়কের মাটি হাওরে বিলীন হয়ে গেছে। ব্লকগুলো এলোমেলোভাবে পড়ে আছে। সড়কের চারটির সেতুর উভয়পাশ থেকে মাটি সরে গেছে। জয়শ্রী বাজার সংলগ্ন সেতুটি পুরোপুরি ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এর মধ্যে কান্দাপাড়া ঢালা ও তার অদূরে পূর্ব দিকের সেতুর উভয়পাশে মাটি ফেলে কোনো রকমে চলাচলের ব্যবস্থা করে যাচ্ছে লেগুনা মালিক সমিতি।
লেগুনা মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলম বলেন, ‘বিকল্প সড়ক না থাকায় প্রত্যেক বছরই নিজস্ব অর্থায়নে আমরা সড়ক সংস্কার কাজ করে লেগুনা চালাই। সড়কটির বেহাল দশার কারণে বৈশাখে কৃষকেরা ধান বাজারজাত করতে পারেনা। আমরা দুইবার সড়ক সংস্কারের জন্য সরকারি টাকা পেয়েছি। আমাদের লেগুনা চালানোর স্বার্থে লাখ টাকা উপরে খরচ করে সড়কটি সংস্কার করতে হয়। সড়কটি সংস্কার করতে ২০/২৫ দিন সময় লাগে। আমরা সরকারি সহযোগিতা কামনা করি।’
উপজেলা এলজিইডির প্রকৌশলী মো. আরিফ উল্লাহ খান, ‘এ সড়ক মেরামতের জন্য প্রাক্কলন পাঠানো হয়েছে। লেগুনা মালিক সমিতি প্রতি বছরই সড়কে কাজ করে। আমাদের কাছে তারা সাহায্য চেয়েছে। কাজের মান ভালো হলে আমরা বিষয়টি দেখবো।’