নদীর পাড়ে ময়লার ভাগাড়

স্টাফ রিপোর্টার
সুনামগঞ্জ পৌর শহরের উত্তর আরপিননগর এলাকার সুরমা নদীর পাড়ের অংশ ময়লার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে। এতে ভোগান্তিতে পড়ছেন এলাকাবাসী ও পথচারীরা। প্রতিনিয়ত দুর্গন্ধের কারণে নাক-মুখে কাপড় চেপে চলাচল করতে হয় তাদের। পরিবেশের সাথে সাথে এই আবর্জনা দূষিত করছে নদীর পানিও।
সরজমিনে দেখা যায়, উত্তর আরপিননগর এলাকায় ডাস্টবিন না থাকায় এলাকার মানুষ ও ব্যবসায়ীরা প্রতিদিন সড়কের পাশে ও নদীর পাড়ে বাড়ির ময়লা, ডাবের খোসা, পলিথিন, বাসী পচা খাবার ফেলছেন। যা অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ তৈরি করছে। মশা-মাছি বাড়ছে এবং রোগজীবানু ছড়ানোর আশঙ্কা বাড়ছে। সড়কের পাশের ময়লা কর্তৃপক্ষ পরিস্কার না করায় সেই ময়লা গিয়ে মিশছে নদীতে।
স্থানীয় বাসিন্দা আরমান মিয়া বলেন, প্রতিদিন গোসল করার জন্য সুরমা নদীর ঘাটে আসি। কিন্তু ঘাটের পাশে ময়লা-আবর্জনার স্তূপ। আমরা নিরুপায়, কোনোরকম গোসল করে আসি।
মো. সাকিব আহমেদ বললেন, দুর্গন্ধের কারণে এলাকার মানুষকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। ডাস্টবিন না থাকায় এলাকার মানুষ সড়কের পাশে ময়লা ফেলছে। এতে নদীর পানিও দূষিত হচ্ছে এবং মশা-মাছি ও পোকামাকড় জন্ম নিচ্ছে। ময়লা ফেলার জন্য এলাকায় ডাস্টবিন স্থাপনের দাবি জানাই।
সুনামগঞ্জ পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী কালী কৃষ্ণ পাল বলেন, জায়গা না থাকায় ডাস্টবিন স্থাপন করা যাচ্ছে না। শুধু পৌরসভা চেষ্টা করলে শহর পরিস্কার রাখা সম্ভব নয়, নাগরিকদেরও সহযোগিতা করতে হবে। তিনি যেখানে সেখানে ময়লা আবর্জনা না ফেলার জন্য অনুরোধ করেন।