নভেম্বরের আগে কমছে না লোড শেডিং

সু.খবর ডেস্ক
বিদ্যুৎ আসে, বিদ্যুৎ যায়। এই নিয়মে চলছে সর্বত্র। সরকার দৈনিক এক ঘণ্টা লোড শেডিং ঘোষণা করলেও তা এখন স্থানভেদে ছয় ঘণ্টায় পৌঁছেছে। আগামী নভেম্বর মাসের আগে লোড শেডিং পরিস্থিতির উন্নতির আশা নেই বলেই জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।
সোমবার দুপুরে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান। এর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ‘গ্যাস আনতে না পারায় নভেম্বরের আগে লোড শেডিং পরিস্থিতির উন্নতির আশা নেই। ’
নসরুল হামিদ বলেন, ‘লোডের কারণে আমরা দিনের বেলা কিছু পাওয়ার প্লান্ট বন্ধ রাখছি। আবার দিনে যেগুলো চালাচ্ছি সেগুলো রাতে বন্ধ রাখছি। এ জন্য লোড শেডিংয়ের জায়গাটা একটু বড় হয়ে গেছে। আমরা চেয়েছিলাম অক্টোবর থেকে কোনো লোড শেডিংই থাকবে না। কিন্তু সেটা আমরা করতে পারলাম না। কারণ আমরা গ্যাস আনতে পারিনি। ’
প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, ‘সমস্যাটা সাময়িক হতে পারে। তবে আমি মনে করি, বললেই এটা সাময়িক হচ্ছে না। কারণ বিশ্ব পরিস্থিতি আবার অন্য রকম করে ফেলে। ’
চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় এখন ইন্ডাস্ট্রিতে গ্যাস দিচ্ছেন বলেও জানান নসরুল হামিদ। সবাইকে ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, এই মাসটা (অক্টোবর) একটু কষ্ট করতে হবে। সামনের মাস থেকে আরেকটু ভালো হবে বলে আশা প্রতিমন্ত্রীর।
সূত্র : কালেরকন্ঠ