নমুনা পরীক্ষা বাড়লে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ে

স্টাফ রিপোর্টার
করোনাভাইরাস আক্রান্তের হ্রাস-বৃদ্ধি ঘুরপাক খাচ্ছে নমুনা পরীক্ষার আবর্তে। নমুনা পরীক্ষা বাড়লে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ে। আর নমুনা পরীক্ষা কমলে কমে যায় আক্রান্তের সংখ্যা। গত চব্বিশ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার তুলনায় আক্রান্ত শনাক্তের হার প্রায় ৪৪.৫৮ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় ২৪০ জনের নমুনা পরীক্ষায় জেলায় নতুন করে করোনাভাইরাসে শনাক্ত হয়েছেন ১০৭ জন। সোমবার জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন স্বাক্ষরিত কোভিড ১৯ রিপোর্ট সূত্রে এই তথ্য জানা যায়।
রিপোর্ট অনুযায়ী ১২৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় সুনামগঞ্জ সদর উপজেলায় করোনায় আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন সর্বোচ্চ ৫০ জন। এছাড়াও ৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় বিশ^ম্ভরপুর উপজেলায় ৪ জন, ৩৯ জনের নমুনা পরীক্ষায় তাহিরপুর উপজেলায় ২৩ জন, ১৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় জামালগঞ্জ উপজেলায় ৩ জন, ১১ জনের নমুনা পরীক্ষায় ধর্মপাশা উপজেলায় ৪ জন, ২১ জনের নমুনা পরীক্ষায় ছাতক উপজেলায় ১৭ জন, ১৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় জগন্নাথপুর উপজেলায় ৫ জন এবং ২ জনের নমুনা পরীক্ষায় দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় ১ জন করোনায় আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন।
সুনামগঞ্জ জেলায় গত বছরের ১২ এপ্রিল প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত একজন রোগী শনাক্ত হন। জেলায় এ পর্যন্ত ৪ হাজার ৮৬ জনের শরীরে বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। উল্লেখ্য, করোনাভাইরাস শনাক্তে এ পর্যন্ত ২২ হাজার ১৯৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এরমধ্যে রিপোর্ট পাওয়া গেছে ২১ হাজার ৪৩৫ জনের। এরমধ্যে করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ৩ হাজার ২০২ জন। এদিকে এন্টিজেন নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৩,৭৬২ জনের। এরমধ্যে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ৮৮৪ জন।
এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় জেলায় আরও ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার ২ জন এবং জগন্নাথপুর উপজেলার ১ জন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত জেলায় মৃত্যুবরণ করেছেন ৪৭ জন। সবচেয়ে বেশি ১৫ জন মারা গেছেন সুনামগঞ্জ সদর উপজেলায়। এছাড়াও দোয়ারাবাজার উপজেলায় ১ জন, বিশ^ম্ভরপুর উপজেলায় ২ জন, তাহিরপুর উপজেলায় ২ জন, জামালগঞ্জ উপজেলায় ১ জন, দিরাই উপজেলায় ৩ জন, ধর্মপাশা উপজেলায় ৪ জন, ছাতক উপজেলায় ১৩ জন, জগন্নাথপুর উপজেলায় ৫ জন এবং দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় ১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।
জেলার নতুন করে আরোগ্য লাভ করেছেন ৬৫ জন। এদের মধ্যে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার ১৮ জন, বিশ^ম্ভরপুর উপজেলায় ৪ জন, ধর্মপাশা উপজেলার ৩২ জন, জগন্নাথপুর উপজেলার ৭ জন এবং শাল্লা উপজেলার ৪ জন। জেলায় এ পর্যন্ত আরোগ্য লাভ করেছেন ৩১৬৯ জন। আক্রান্তের তুলনায় সুস্থতার হার ৭৭.৫৫ শতাংশ।
বর্তমানে আইসোলেসনে আছেন ৮৭০ জন। এরমধ্যে সর্বোচ্চ ৪৩৫ জন আইসোলেসনে আছেন সুনামগঞ্জ সদর উপজেলায়। এছাড়াও ছাতক উপজেলার ৬৪ জন, বিশ^ম্ভরপুর উপজেলায় ২১ জন, তাহিরপুর উপজেলায় ১১১ জন, জামালগঞ্জ উপজেলায় ৪৮ জন, দিরাই উপজেলার ৫১ জন, ধর্মপাশা উপজেলার ২৪ জন, দোয়ারাবাজায় উপজেলায় ১৪ জন, জগন্নাথপুর উপজেলায় ৬৬ জন, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় ২৫ জন এবং শাল্লা উপজেলায় ১১ জন আইসোলেসনে রয়েছেন।
রিপোর্ট অনুযায়ী করোনা সংক্রমণের শীর্ষে রয়েছে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা। এ উপজেলায় এ পর্যন্ত ১৭১৩ জন করোনায় আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। আরোগ্য লাভ করেছেন ১২৬৩ জন। এছাড়াও দোয়ারাবাজার উপজেলায় ১৫৮ জন করোনা আক্রান্তের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১৪৩ জন, বিশ^ম্ভরপুর উপজেলায় ১৩৪ জন আক্রান্তের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১১১ জন, তাহিরপুর উপজেলায় ১৯৭ জনের মধ্যে ৮৪ জন, জামালগঞ্জ উপজেলায় ১৫৬ জনের মধ্যে ১০৭ জন, দিরাই উপজেলায় ১৯৩ জনের মধ্যে ১৩৯ জন, ধর্মপাশা উপজেলায় ১২৭৮ জনের মধ্যে ৯৯ জন, ছাতক উপজেলায় ৬৮৩ জনের মধ্যে ৭০৬ জন, জগন্নাথপুর উপজেলায় ৩৮৮ জনের মধ্যে ৩১৭ জন, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় ১৭৫ জনের মধ্যে ১৪৯ জন এবং শাল্লা উপজেলায় ৬২ জনের মধ্যে ৫১ জন সুস্থ হয়েছেন।