নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ (এনইইউবি) নিয়ে কিছু কথা

প্রফেসর ড. মোঃ ইলিয়াস উদ্দীন বিশ্বাস
উপাচার্য
আজ ১২ জুন ২০২১ নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ-এর উপাচার্য হিসেবে আমার যোগদান করার ৫ মাস পূর্ণ হলো। প্রবীন রাজনীতিবিদ এডভোকেট ইকবাল আহমেদ চৌধুরী যিনি আইন পেশায় পঞ্চাশ বছর পার করেছেন তিনি এ বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজ এর সম্মানিত সভাপতি। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্যগণ সুশিক্ষিত ও নিজ নিজ পেশায় সুপ্রতিষ্ঠিত যাঁদের অনেকের সঙ্গেই রয়েছে আমার সু-সম্পর্ক। তাঁরা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার গুণগত মান বজায় রাখতে বদ্ধপরিকর। এটা লক্ষ্য করে আমার ভালো লেগেছে। সিন্ডিকেট ও একাডেমিক কাউন্সিলে রয়েছেন সরকারের সচিব পদমর্যাদার ব্যক্তিবর্গ এবং সরকারী-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনায় অভিজ্ঞ শিক্ষাবিদগণ। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী গ্র্যাজুয়েটদের মধ্য থেকেই এ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এখানে কোনো স্বজনপ্রীতির আশ্রয় নেওয়া হয়নি। কর্মকর্তা ও কর্মচারী নিয়োগের ক্ষেত্রেও তাই। বর্তমান করোনাকালীন সময়ে শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যতের কথা ভেবে ইউজিসির গাইড লাইন মেনেই অনলাইনে যাবতীয় শিক্ষা কার্যক্রম চলছে। শিক্ষকগণ অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রমে পারদর্শী হয়ে উঠেছেন। করোনাকালের কথা ভেবে অভিভাবকদের প্রতি চাপ কমাতে ভর্তিফিসহ অন্যান্য ক্ষেত্রেও যথেষ্ট ছাড় দেওয়া হয়েছে।
২০১২ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে সিলেটের শিক্ষা বিস্তারে ব্যাপক কাজ করে যাচ্ছে এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি। ইতোমধ্যে দেশের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে অন্যতম সফল একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত হয়েছে। ক্যাম্পাসটি নগরীর মধ্যে হওয়ায় এখানে পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা পাচ্ছেন যাতায়াতসহ বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা।
নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশে-এ আইন ও বিচার অনুষদ, ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ, মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ এবং বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদ এর অধীনে সাতটি বিভাগে শিক্ষাকার্যক্রম চালু রয়েছে। উক্ত বিভাগগুলোতে স্নাতক পর্যায়ে ব্যাচেলর অব ’ল’, বি.এ (অনার্স) ইন ইংলিশ, বি এস এস (অনার্স) ইন এ্যপ্লায়েড সোসিওলজী এন্ড সোশ্যাল ওয়ার্ক, বিএসসি (ইঞ্জিনিয়ারিং) ইন সিএসসি এবং স্নাতকোত্তরে মাস্টার ইন ডেভোলাপমেন্ট স্টাডিজ (এমডিএস), মাস্টার্স অব পাবলিক হেলথ (এমপিএইচ), মাস্টার্স অব ’ল’ (এলএলএম), এমবিএ, এমবিএ (এক্সিকিউটিভ), এমএ ইন ইংলিশ ও এমএসসি ইন ম্যাথেমেটিক্স ডিগ্রি প্রদান করা হচ্ছে।
লেখাপড়ার পাশাপাশি এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা সাহিত্য সংস্কৃতি চর্চা এবং সৃজনশীল কর্মকান্ডের সাথে সম্পৃক্ত হতে গড়ে তুলেছে বিভিন্ন সংগঠন। এছাড়াও রয়েছে গবেষণা কেন্দ্র, লাইব্রেরী ও ই-লাইব্রেরী। নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে বাইরের দেশের ইউনিভার্সিটিতে ক্রেডিট ট্রান্সফারের সুবিধা।
শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষার মান যাচাইয়ের জন্য ইউজিসি কর্তৃক প্রণীত নীতিমালা অনুসরণ করে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে Institutional Quality Assurance Cell (IQAC) প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে।
নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এর শিক্ষার্থীরা শিক্ষা জীবন সম্পন্ন করে সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন সংস্থার উচ্চ পদে কর্মরত রয়েছেন। উচ্চ শিক্ষাক্ষেত্রে শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের মধ্যে আন্তরিকতার ফলে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা পড়াশোনার পাশাপাশি গবেষণায়ও দেশ বিদেশে সুনাম কুড়িয়েছেন। গবেষণায় শিক্ষকরাও আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি অর্জন করছেন। অভিজ্ঞ, মেধাসম্পন্ন ও কর্মোদ্যোমী শিক্ষকদের তত্বাবধানে শিক্ষার্থীদের শিক্ষাদানের ফলে এনইইউবি যেকোনো মান দন্ডে এগিয়ে রয়েছে। শিক্ষার্থীদের যুগোপযোগী শিক্ষায় শিক্ষিত করে দক্ষ মানব সম্পদ হিসেবে গড়ে তোলাই এই বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল লক্ষ্য। এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়টিকে আরো সামনের দিকে এগিয়ে নিতে সবার সহযোগিতা একান্ত কাম্য।