নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশীরা ঢাকায় মাঠে সরব স্বতন্ত্র প্রার্থীরা

এম.এ রাজ্জাক, তাহিরপুর
সপ্তম ধাপে তাহিরপুর উপজেলার ৭ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ১২ জানুয়ারি, বাছাই ১৫ জানুয়ারি এবং ভোট গ্রহণ ৭ ফেব্রুয়ারি। ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা নৌকা প্রতীকের জন্য বর্তমানে ঢাকায় অবস্থান করে দৌঁড়ঝাঁপ করছেন। ২ জানুয়ারি থেকে ৪ জানুয়ারি পর্যন্ত আ.লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা দলীয় ফরম সংগ্রহ করে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জমা দিয়ে নৌকা প্রতীক বাগিয়ে নিতে জোর তদবির ও লবিং করছেন। অপরদিকে বিএনপি ঘোষণা দিয়ে নির্বাচনে না এলেও তাদের দলীয় সমর্থিত প্রার্থীরা স্বতন্ত্র হয়ে মাঠে সরব রয়েছেন।
প্রার্থীদের সমর্থকরাও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছন। বাজারে, রাস্তা-ঘাটে, পাড়া-মহল্লায় ইতোমধ্যে পোস্টার, ব্যানারে ছেয়ে গেছে। চায়ের দোকানগুলোতে নিজ নিজ পছন্দের প্রার্থীদের নিয়ে আলাপ আলোচনা জমে উঠেছে। তাহিরপুর উপজেলার সাত ইউনিয়নে মোট ভোটার ১ লাখ ৪১ হাজার ৩১১ জন।
আ.লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে কেন্দ্রে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়ন থেকে উপজেলা আ.লীগের সভাপতি, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হোসেন খান, উপজেলা আ.লীগ সদস্য জাবির আহমদ জাবেদ, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা আবুল খায়ের, সালেহ আহমদ সবুজ। বিএনপি থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মাঠে সরব রয়েছেন আলী হায়দার, সামছু মিয়া।
দক্ষিণ শ্রীপুর ইউনিয়ন থেকে বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান বিশ্বজিৎ সরকার, আ.লীগ নেতা আতিকুর রহমান, যুবলীগ নেতা দ্বিপক তালুকদার, যুব মহিলা লীগ নেত্রী আইরিন আক্তার। বিএনপি থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন বিএনপি নেতা শামীম আহমদ মুরাদ, অ্যাড. মানিক মিয়া।
বাদাঘাট ইউনিয়ন থেকে ইউনিয়ন আ.লীগের যুগ্ম আহবায়ক বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান মো. আফতাব উদ্দিন, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আ.লীগ নেতা নিজাম উদ্দিন, বুরহান উদ্দিন, সুজাত মিয়া।
বড়দল উত্তর ইউনিয়ন থেকে ইউনিয়ন আ.লীগ সভাপতি মো. জামাল উদ্দিন, ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি মো. মাসুক মিয়া। বিএনপি থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে মাঠে ভোট প্রার্থনা করছেন বর্তমান ই্উপি চেয়ারম্যান মো. আবুল কাশেম, ইউনিয়ন যুবদল সভাপতি রুহুল আমিন।
দক্ষিণ বড়দল ইউনিয়ন থেকে উপজেলা আ.লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ইউনুস মিয়া, শ্রমিকলীগ নেতা আব্দুল কুদ্দুস, ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি সাইফুল ইসলাম, ইউনিয়ন কৃষকলীগ সভাপতি রহমত আলী। বিএনপি থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মাঠে রয়েছেন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা মো. সবুজ আলম।
বালিজুরী ইউনিয়ন থেকে ইউনিয়ন আ.লীগ সভাপতি, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আতাবুর রহমান, ব্যবসায়ী মো. আজাদ হোসাইন, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক সামায়ুন কবির, স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর জহুর তালুকদার।
তাহিরপুর সদর ইউনিয়ন থেকে আ.লীগ নেতা সাবেক চেয়ারম্যান মোতাহার হোসেন আখঞ্জি শামীম, উপজেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর খোকন, আ.লীগ নেতা অনুপ রায়। বিএনপি থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মাঠে আছেন বিএনপি নেতা জুনাব আলী, স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান বোরহান উদ্দিন, আতিকুর রহমান আতিক।
সূত্রে জানা যায়, বিএনপি প্রার্থীরা স্বতন্ত্র হয়ে মাঠে সরব থাকলেও বিভিন্ন কোন্দল আর গ্রুপিংয়ে জর্জরিত। তবুও তারা মাঠে নিজ বলয়ে ভোট চেয়ে কাজ করছেন। এবার বিএনপির মাঠ পর্যায়ের অবস্থান অনেকটাই ভাল বলছেন সাধারণ ভোটাররা। এদিকে আ.লীগ সমর্থকরা বলছেন, কেন্দ্রীয় আ.লীগের নীতি নির্ধারকরা সঠিক জায়গায় নৌকা প্রতীক মনোনয়ন না দিতে পারলে গতবারের মতো এবারও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জয়ী হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।