পানির উপর বিদ্যালয়ে খাবার পানি নেই!

গোলাম সরোয়ার লিটন
হাওরের পানির ওপর রড সিমেন্টের খুঁটিতে দাঁিড়য়ে আছে বিদ্যালয়টি। চারপাশও গভীর পানিতে বেষ্টিত। কিন্তু বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষকদের জন্য বিশুদ্ধ খাবার পানির সংকট। এ অবস্থাটি সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার দক্ষিণ বড়দল ইউনিয়নের জামলাবাজ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের। খাবার পানির সংকট মেটাতে দ্রুত একটি নলকুপ স্থাপনের দাবি জানিয়েছেন বিদ্যালয়টির শিক্ষক, অভিভাবক ও ছাত্রছাত্রীরা।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, জামলাবাজ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২০০৯ সালে উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল কার্যালয়ের মাধ্যমে একটি নলকুপ স্থাপন করা হয়। খাবার পানির চাহিদা মেটাতে স্থাপিত এই নলকুপটি মাঝে মাঝেই অকেজো হয়ে যেত। দুই মাস হয় নলকুপটি সম্পূর্ণ অকেজো হয়ে পড়েছে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নলকুপটি সারাতে ইতিমধ্যেই পাঁচ হাজার টাকা খরচ করেছেন। তবুও এটি আর চালু করা যায়নি।
ছাত্র অভিভাবক ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আক্তার হোসেন বলেন, বিদ্যালয়ের পাঠদান বন্ধ থাকলেও শিক্ষকগণকে নানা কাজে বিদ্যালয়ে আসতে হয়। এ সময় পানির সংকটে পড়েন তারাঁ। তিনি জানান, সম্প্রতি পাঁচ হাজার টাকা খরচ করেও নলকুপটি চালু করা যায় নি।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রাখী রাণী দে বলেন, বিদ্যালয়ের একমাত্র নলকুপটি স্থাপনের পর থেকেই ঠিকমতো পানি পাইনি। গত দুই মাস ধরে এটি একেবারে নষ্ট্ হয়ে গেছে। চেষ্টা করেও মেরামত করতে পারি নি।
সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ আবু সাঈদ বলেন, খাবার পানিসহ আনুসাঙ্গিক চাহিদা মেটাতে বিদ্যালয়টিতে দ্রুত একটি নলকুপ স্থাপন প্রয়োজন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রায়হান কবির বলেন, বিদ্যালয়ে দ্রুতই নলকুপ স্থাপনের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান করুণা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল বলেন, বিদ্যালয়টিতে এক মাসের মধ্যেই একটি নলকুপ স্থাপনের উদ্যোগ নেবো।