প্রধানমন্ত্রী মানুষের জীবন রক্ষায় কাজ করছেন- পরিকল্পনামন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার
পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান এমপি বলেছেন, সরকার করোনাকালে মানুষের জীবন রক্ষায় কাজ করছে। আমাদের আর্থিক ক্ষমতা যা আছে, তা দিয়েই সকল আগে স্বাস্থ্যখাতকে গুরুত্ব দিচ্ছি আমরা। আমাদের নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, উনার এখন প্রধান কাজ মানুষের জীবন রক্ষা করা।
মন্ত্রী আরো বলেন, সময় পাল্টাচ্ছে, সময়ের গতি কেউ আটকাতে পারবে না, আমাদের মধ্যে আধুনিকতার উদ্ভব হচ্ছে। আধুনিক মানে সময়ের সঙ্গে মিলে চলা। একুশ শতকে, এই শতকের উপযোগি কথা না বলে, দশম শতকের কথা বললে হবে না। এখন সিরাজ উদ দৌলার কথা বললে হবে না। এখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুগ, উনার নেতৃত্বে আধুনিক বাংলাদেশ মাথা উঁচু করে দাঁড়াচ্ছে।
শনিবার সকালে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুননেছা মুজিব স্মরণে সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের আয়োজনে ‘বঙ্গমাতা অক্সিজেন সেবা’ কর্মসূচির উদ্বোধন শেষে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, ছাত্রলীগের জন্ম হয়েছিল ঐতিহাসিক প্রয়োজনে, পরবর্তীতে পরিবেশ পরিস্থিতির কারণে ঠেকায় পড়ে আওয়ামী মুসলিম লীগ নামে দল হয়েছিল। নানা সংকীর্ণতার কারণে এখনো ঠেকায় পড়ে ঘুরিয়ে কিছু কাজ আমাদের করতে হয়। দৃষ্টিভঙ্গি সংকীর্ণ থাকায় এখনো আমাদের দেশে কিছু মানুষ জীবনের কিছু বিষয় গণতন্ত্র, অসাম্প্রদায়িকতা, সাম্য, ভ্রাতৃত্ব বুঝেন না।
সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগ ‘বঙ্গমাতা অক্সিজেন সেবা’ চালু করায় সংগঠনের নেতাদের ধন্যবাদ জানান তিনি।
জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি দীপঙ্কর কান্তি দে’র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আশিকুর রহমান রিপনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর হোসেন, পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান, সিভিল সার্জন ডা. শামস উদ্দিন প্রমুখ।
তিনি আরো বলেন, আমি সুনামগঞ্জের সন্তান আমার বাড়ি এই জেলায়, কাজেই জেলা শহরে আমার আরো বেশী বেশী আসা প্রয়োজন। তিনি কারো বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ নেই উল্লেখ করে বলেন, আমার এখন যাবার সময় এসে গেছে, আমার কবরও এই জেলার শান্তিগঞ্জে হবে, সেই ব্যবস্থাটা করে রাখা হয়েছে। আমার সন্তানেরা হয়তো কোনদিন এই দেশে আসবে না, যেহেতু তারা প্রবাসে স্থায়ী বাসিন্দা হয়ে গেছে, এখানে আসবে বলে মনে হচ্ছে না। ঢাকায় আমি বলে থাকি সুনামগঞ্জে আমার বাড়ি। কেউ কেউ ভুল বুঝে মিথ্যা সমালোচনা করে ঢাকায় সুশীল সমাজের কাছে, আমার নেত্রী প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার অবস্থানে চিড় ধরানোর চেষ্টা করেন।
আমি সুনামগঞ্জের কোন উন্নয়ন নিয়ে কথা বলতে এখন ভয় পাই। আমার মনে হয় এমন উদ্যোগ নিলেই হয়তো বাঁধা আসবে, বলা হবে আমি সব কিছু নিয়ে যাচ্ছি। সারাদেশের সঙ্গে যোগাযোগ সড়ক দক্ষিণ দিকে আমি করি নি, অনেক আগে হয়েছে, ওদিকে স্থাপনা হলেই আমি নিয়ে যাচ্ছি, এটা ভাবা ঠিক নয়। সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয় সুনামগঞ্জ সদরেই হবে, বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল সুনামগঞ্জ সদরেই হয়েছে।
তিনি বলেন, শোকের মাস চলছে, স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তি ও কিছু বিপৎগামী সেনা সদস্য ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট স্বাধীন বাংলার স্থপতি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, তাঁর প্রিয়তম সহধর্মিনী শেখ ফজিলাতুননেছা মুজিবসহ তাঁদের সন্তান ও স্বজনদের হত্যা করেছিল। তারা ভেবেছিল শেখ মুজিবকে হত্যা করে এদেশের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রাকে চিরদিনের জন্য বন্ধ করে দেওয়া যাবে। কিন্তু স্বাধীনতার দীর্ঘ একুশ বছর পরে হলেও দেশের আপামর জনগণের রায় নিয়ে বিপুল ভোটে তার সুযোগ্য উত্তরসূরী গণতন্ত্রের মানসকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্রিয় ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হয়ে রাষ্ট্র পরিচালনা করছেন। জাতির পিতার খুনীদের বিচারের রায় কার্যকর করে জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করেছেন তিনি।
এদিকে শনিবার সকাল ১০টায় শান্তিগঞ্জ উপজেলা চত্বরে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার সামগ্রী বিতরণ করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান। এরপর উপজেলা প্রশাসন চত্বরে বৃক্ষরোপন অভিযানের উদ্বোধন করেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।