ফসলরক্ষা বাঁধ কেটে মাছ শিকার

ধর্মপাশা প্রতিনিধি
ধর্মপাশা উপজেলার পাইকুরাটি ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য কামাল হোসেনের বিরুদ্ধে ফসলরক্ষা বাঁধ কেটে মাছ শিকারের অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে সদর ইউনিয়নের জানিয়ারচর গ্রামের মৃত গোলাম মোস্তফার ছেলে মাসুম মিয়াসহ পাঁচজন এ ব্যাপারে কামাল হোসেনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেছেন।
২০২১-২২ অর্থ বছরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের রুই বিল প্রকল্পের ১৪৯ নং প্রকল্পের অধীনে ১.১৩৬ কিলোমিটার বাঁধ ২৪ লাখ ১৭ হাজার ৭২০ টাকা ব্যয়ে নির্মাণ ও মেরামত হয়। কিছুদিন আগে পাইকুরাটি ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামের বাসিন্দা সাবেক ইউপি সদস্য কামাল হোসেন ওই বাঁধের সেলিমখালি নামক স্থানটি কেটে ভীম জাল দিয়ে মাছ শিকার শুরু করে। এমনকি বাঁধের ওপর ঢেড়া (অস্থায়ী ঘর) নির্মাণ করে সেখানে তার লোকজন অবস্থান করছে। এতে করে বাঁধটি মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বাঁধ কেটে মাছ শিকারের ফলে আগামী বোরো মৌসুমে বোরো ফসল ঝুঁকিতে পড়ার সম্ভাবনা যেমন রয়েছে তেমনি বাঁধটি নতুন করে মেরামত করতে গিয়ে অতিরিক্ত সরকারি অর্থ ব্যয়ের শঙ্কা রয়েছে।
অভিযোগকারী মাসুম মিয়া বলেন, ‘ফসলরক্ষা বাঁধ কেটে অবৈধভাবে মাছ ধরার কারণে বাঁধটির মারাত্মক ক্ষতি হয়েছে। এ নিয়ে কামালকে বাধা দিয়েও কোনো লাভ হচ্ছে না। বরং জোরপূর্বকভাবে আমাদের ভয়ভীতি দেখিয়ে অবৈধভাবে মাছ শিকার করে চলেছে। এতে করে আমাদের বোরো ফসল আগামীতে হুমকিতে পড়তে পারে।’
ফসলরক্ষা বাঁধ কাটার কথা অস্বীকার করে অভিযুক্ত কামাল হোসেন বলেন, ‘যদি কেউ অভিযোগ দিয়ে থাকে তাহলে সে তার স্বার্থের জন্য দিয়েছে। প্রশাসনসহ সবাই অবগত আছে যে, এখান দিয়ে নৌকা চলাচল করে।’
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুনতাসির হাসান বলেন, ‘এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। সরেজমিন পরিদর্শন করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য এসিল্যান্ড বলা হয়েছে।’