বর্ণিল সাজে সেজেছে শহর

আসাদ মনি
নৌকায় চড়ে রাজশাহীতে ১৯৫৪ সালের যুক্তফন্টের নির্বাচনী প্রচারণায় যাচ্ছেন শেখ মুজিবুর রহমান। সঙ্গে রয়েছেন হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী। বঙ্গবন্ধুর হাতে ছবির মতো কিছু একটা রয়েছে। দূর থেকে আঁচ করা যাচ্ছে না। সোহরাওয়ার্দী’র পাশেই শোকেস ও প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র রাখা হয়েছে।
শহরের কালিবাড়ীর সামনের পুকুরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিসহ সহচরদের নিয়ে নৌকায় ভাসছেন, এই শিল্পকর্মটি দেখতে ভিড় করছেন স্থানীয়রা। হাস্যেজ্জল ছবি দেখে মনে হচ্ছে যেন নিজের শতবর্ষের জন্মবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বঙ্গবন্ধু সুনামগঞ্জ আসছেন নৌকায় চড়ে। একটু সামনেই শহরের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট আলফাত স্কয়ারে রাখা হয়েছে আরেকটি ফেস্টুন। ফেস্টুনটি দেখে মনে হচ্ছে বঙ্গবন্ধু হাত তুলে এই এলাকার মানুষদের স্বাগত জানাচ্ছেন।
জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে সুনামগঞ্জ পৌরশহর সেজেছে ফেস্টুন, ব্যানার ও বিলবোর্ডে। শহরের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে মুজিব শতবর্ষে জেলা আওয়ামী লীগ এমন উদ্যোগ নিয়েছে। সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদ, জেলা প্রশাসন ও পৌরসভার নানা উদ্যোগও চোখে পড়ার মতো।


জেলা প্রশাসকের বাসভবনের পশ্চিম দিকে আরেকটি বিলবোর্ড সাঁটানো হয়েছে। একটু সামনেই সুনামগঞ্জ পৌরসভা। পৌর ভবনের সামনে সরকারি জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয়ের দেয়াল প্রাচীরেই আরেকটি বিলবোর্ড স্থান পেয়েছে। সেখানে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণের তর্জনী উঠিয়ে ভাষণের ছবিসহ বিভিন্ন সময়ের তুলা ছবি স্থান পেয়েছে। ‘প্রত্যেক ঘরে ঘরে দুর্গ গড়ে তুলো, তোমাদের যা কিছু আছে তাই নিয়ে, শত্রুর মোকাবেলা করতে হবে’ ভাষণের এই কথাগুলো জ¦লজ¦ল করছে বিলবোর্ডে।
হোসেন বখত চত্ত্বরের একদিকে হাত পেছনে নিয়ে দেখছেন বঙ্গবন্ধু। পড়নে ঢিলেঢালা পায়জামা ও পাঞ্জাবি। পাঞ্জাবির উপরে পড়েছেন হাতকাটা কালো কোর্ট। এই চত্বরের একপাশে ডান হাতটা আলতু মুখের উপর চেপে সেখানে বঙ্গুবন্ধু হাটছেন।
জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম. এনামুল কবির ইমনের বাসার ছাদেও রয়েছে আরেকটি ফেস্টুন। চোখে কালো চশমা পড়ে ডান হাত উঠিয়ে জনতাকে উদ্বেলিত করছেন বঙ্গবন্ধু।
শহরের প্রবেশ দ্বার আব্দুজ জহুর সেতুর উপরে বানানো হয়েছে ত্রিকোণ চত্ত্বর। তিন দিকেই ছবি ও ফেস্টুন দিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি তৈরি করা হয়েছে। হাসিমুখে গলায় চাদর জড়িয়ে হাত তুলে বিদায় জানাচ্ছেন।
এছাড়াও রিভার ভিউ পয়েন্ট, কাজিরপয়েন্ট, ময়নার পয়েন্ট, জেলা পরিষদ চত্বর এলাকায় বিলবোর্ড ব্যানারে ভরপুর।
এদিকে সুনামগঞ্জ সরকারি জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে প্রায় ৪০ ফুট উঁচু বঙ্গবন্ধুর একটি প্রতিকৃতি তৈরি করা হচ্ছে। এই প্রতিকৃতি তৈরির কাজ রাতে শেষ হবে।