‘বাংলাদেশি বংশোদ্ভূতরা দ্বিগুণ মৃত্যুঝুঁকিতে’

মতিয়ার চৌধুরী, লন্ডন
ব্রিটেনের হাসপাতালগুলোতে সাদা ব্রিটিশদের তুলনায় কালো এবং আফ্রিকান বংশোদ্ভূতদের মধ্যে কোভিড-১৯ এর কারণে মৃত্যুর হার ৩.৫ গুণ বেশী। হোয়াইট ব্রিটিশ জনগোষ্ঠীর মানুষের তুলনায় ব্রিটিশ বাংলাদেশী বংশোদ্ভূতরা প্রায় দ্বিগুণ মৃত্যুঝুঁকিতে। কোভিড আক্রান্তদের সেবা দিতে গিয়ে চিকিৎসকদের মধ্যে ৯৫% বিএএমই কমিউনিটির চিকিৎসকরা প্রাণ হারিয়েছেন।
এ মন্তব্য ইস্ট লন্ডনের পপলার এবং লাইম হাউজ এলাকা থেকে নির্বাচিত বাংলাদেশী বংশোদ্ভূতরা লেবার দলীয় ব্রিটিশ এমপি আফসানা বেগমের।
লেবার-লিবারেল ডেমক্রেট এবং এসএনপি থেকে নির্বাচিত সংসদীয় সহকর্মিদের দ্বারা স্বাক্ষরিত প্রস্তাবে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে আর্লি ডে মোশন (ইডিএম) এ তিনি এ কথা বলেন। অন্যান্য দুর্বল গ্রুপ ও স্বাস্থ্যকর্মিদের পাশাপাশি ভ্যাকসিন দেওয়ার জন্য বিএএমই সম্প্রদায়কেও অগ্রাধিকার দেয়া উচিত এবং তা বাস্তবায়নে সরকারকে কোভিড-১৯ টিকা দেওয়ার সিদ্ধান্তে অগ্রধিাকার নির্বাচনে সংশোধন করার আহবান জানান।
পরিসংখ্যানে ক্রমাগত ভাবে দেখা গেছে যে সংখ্যালঘু সম্প্রদায় থেকে আসা জনগোষ্ঠীর মানুষেরা মহামারি দ্বারা ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পর আর্লি ডে মোশন (ইডিএম) এসেছে। বাংলাদেশী বংশোদ্ভূতরা লেবার দলীয় এমপি আফসানা বেগম হেল্থ সেক্রেটারীকে টিকাদানে অগ্রধিকারের বিষয়টি নিয়ে এবং প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে কোভিড পরীক্ষার অগ্রধিকার নিয়ে প্রশ্ন করেন।